কুয়াশায় র‌্যাবের চোখ ফাঁকি দিতে গিয়ে যুবক ধরা

7

স্টাফ রিপোর্টার: ভোর থেকেই রাজশাহীজুড়ে পড়ছে ঘন কুয়াশা। সকাল আটটার দিকে তা আরো ঘন হয়ে যায়। ২০০ মিটারে নেমে আসে দৃষ্টিসীমা। 

আর এরই ভেতর রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় মাদক নিয়ে যাবার সময় ধরা পড়েছেন  সোহাগ আলী (২১) নামের এক যুবক।

র‌্যাব-৫ রাজশাহীর নাটোর ক্যাম্পের একটি দল শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার ছয়ঘাটি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত সোহাগ আলী উপজেলার আলাইপুর এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে। 

তার কাছে থেকে ১০১ বোতল ফেনসিডিল এবং ফেনসিডিল বিক্রির ২ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে র‌্যাব। পরে এনিয়ে বাঘা থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, র‌্যাব জানিয়েছে, সকালে র‌্যাবের নাটোর ক্যাম্পের একটি দল মাদকসহ ওই যুবককে  আটক করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দীর্ঘদিন ধরে মাদক কারবারে যুক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছেন তিনি। পরে ওই যুবকের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নেয়া হয়।

অন্যদিকে, মাঘের শীতে কাবু রাজশাহী অঞ্চলের জনজীবন। বেলা ১২টা পর্যন্ত দেখা মেলেনি সূর্যের। সেই সাথে রয়েছে ঘন কূয়াশা। 

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক লতিফা হেলেন জানিয়েছেন, শুক্রবার ভোর ৬টায় দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। ওই সময় ঘন কূয়াশার কারণে দৃষ্টিসীমা ছিলো ৫০০ মিটার। সকাল ৯টার দিকে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৩ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কিন্তু কূয়াশার তীব্রতা বাড়ায়  দৃষ্টিসীমা নেমে আসে ২০০মিটারে।

বেলা ১২টার দিকে তাপমাত্রা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কিন্তু ঘন কুয়াশা কাটেনি। আকাশে মেঘ থাকায় ১২ টা পর্যন্ত দেখা দেয়নি সূর্য।

এর আগে গত ২৯ ডিসেম্বর রাজশাহীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এটিই এই মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

আপনার মন্তব্য