চাঁপাইনবাবগঞ্জে ছাত্রলীগ কমিটি নিয়ে অপপ্রচার, থানায় জিডি

8

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা ও পৌর শাখার নবগঠিত কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নামে অপপ্রচারের অভিযোগ উঠেছে। কমিটি অনুমোদনের পর থেকেই বেশ কিছু ভূয়া ফেইসবুক আইডি ও পেজ খুলে চলছে মিথ্যাচার। মানহানিকর বক্তব্য ও সম্পাদিত ছবি প্রচার হচ্ছে। এনিয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন ওই দুই কমিটির নেতারা।

গত ৮ অক্টোবর জেলার সদর উপজেলা শাখা, পৌর শাখা ও ভোলাহাট উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন দেয় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সভাপতি আরিফুর রেজা ইমন ও সাধারন সম্পাদক ডা. সাইফ জামান আনন্দ।

সদর উপজেলার কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হন মোহা. আব্দুল আওয়াল তুষার। ওই কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন ফিরোজ আশেফ স্বচ্ছ। অন্যদিকে পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে ফয়সাল আহম্মেদ ও রমজান ইসলাম সোহান।

এছাড়া জেলার ভোলাহাট উপজেলা শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন যথাক্রমে সুলতানুল ইসলাম বুলেট ও রিফাত হোসেন টুইংকেল। দীর্ঘদিন পর নয়া কমিটি পেয়ে প্রাণ ফিরে প্রায় ছাত্রলীগের এসব ইউনিট।

স্থানীয় নেতাকর্মীদের অভিযোগ, কমিটিতে স্থান না পেয়ে নতুন কমিটির ছাত্র নেতাদের নামে অপ্রচারে নামে একটি পক্ষ। তারাই নয়া কমিটির নেতাদের অছাত্র, মাদকাসক্ত এবং অনুপ্রবেশকারীর প্রমাণে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। এনিয়ে বিভ্রান্ত তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

বিষয়টিকে অপপ্রচার ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত উল্লেখ করে সদর উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির পক্ষ থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুর রেজা ইমন জানান, অযোগ্য যারা পদবঞ্চিত হয়েছে তারাই নবগঠিত কমিটির চারজন নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ ও ছবি ইডিট করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন। আমরা তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার সাইফ জামান আনন্দ জানান, দীর্ঘদিন থেকে যারা ছাত্রলীগ করে আসছে এবং আওয়ামী পরিবারের সন্তান তাদেরকেই সভাপতি-সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

বিভ্রান্তি ছড়ানোর জন্য ফেইসবুকে এডিট করা ছবিসহ ভিত্তিহীন অভিযোগ করছে সুযোগসন্ধানীরা। অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মন্তব্য