জামিন না দেয়ায় তর্ক, আইনজীবীকে গ্রেফতারের আদেশ বিচারকের

10
মাদকের মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড যুবকের

বগুড়া: বগুড়া জজ আদালতে হত্যা মামলার আসামিকে জামিন না দেওয়াকে কেন্দ্র করে বিচারক ও আইনজীবীর মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়েছে। সোমবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে বগুড়া জেলা জজ আদালতে এ ঘটনা ঘটে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, বগুড়া জজ আদালতে সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে একটি হত্যা মামলার শুনানিতে আসামির জামিন চান আইনজীবী রেজাউল করিম মন্টু।

এ সময় জেলা জজ আদালতের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ নরেশ চন্দ্র সরকার তা নামঞ্জুর করেন। জামিন নামঞ্জুর করায় আইনজীবী রেজাউল করিম মন্টু তাকে জামিন দেয়ার জন্য পুনরায় আবেদন করেন। এ নিয়ে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়।

এ অবস্থায় বিচারক জেলা ও দায়রা জজ নরেশ চন্দ্র সরকার আদালত পুলিশকে আইনজীবী রেজাউল করিম মন্টুকে গ্রেফতারের আদেশ দেন। তখন ঘটনাস্থলে থাকা আইনজীবীরা মন্টুকে আদালত থেকে বের করে নিয়ে যান।

বগুড়া আইনজীবী সমিতির (বার) সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা বিষয়টি জেনেছি। তবে এখনও কোনো সাংগঠনিক আবেদন বা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

ঘটনার বিষয়ে আইনজীবী রেজাউল করিম মন্টু বলেন, বগুড়ার গাবতলী উপজেলার একটি হত্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত আসামির জামিনের শুনানি ছিল জেলা ও দায়রা জজ আদালতে।

ওই হত্যা মামলায় জামিন আবেদন করা আসামির নাম এজাহারে নাম নেই। রিমান্ডে নিয়ে তার কাছে কোনো তথ্য পাননি তদন্ত কর্মকর্তা। তাকে সন্দেহের ভিত্তিতে গ্রেফতার করে জেলে রাখা হয়েছে। তাই তার জামিন আবেদন করা হয়। কিন্তু বিচারক তার জামিন নামঞ্জুর করেন। তখন তার জামিনের বিষয়ে যথাযথ কারণ উপস্থাপন করলে আমাকে গ্রেফতারের আদেশ দেন বিচারক। এ সময় কয়েকজন আইনজীবী আমাকে আদালত থেকে বের করে নিয়ে আসেন।

তিনি আরও বলেন, এমন অপ্রীতিকর ঘটনার জন্য অবশ্যই আমি বগুড়া বারে অভিযোগ করব। যাতে এ বিষয়ে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

বগুড়া বারের সিনিয়র আইনজীবী লতিফ পশারী ববি বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক। বিচার ব্যবস্থায় এমন ঘটনা অকল্পনীয়। বিচারক ও আইনজীবীর কাছে এমন ঘটনা অপ্রত্যাশিত।

আপনার মন্তব্য