নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের পর হত্যা

9
বড় বোনকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলায় ছোট বোনকে খুন

দেশজুড়ে ডেস্ক: চাঁদপুরের কচুয়ায় জান্নাতুল নাঈম মিশু (১৪) নামে এক নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে।

নিখোঁজের দুই দিন পর গতকাল রোববার দুপুরে কচুয়া উপজেলার ৯নং কড়ইয়া ইউনিয়নের বাসাবাড়ির একটি খাল থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, উপজেলার বড় হয়ায়ৎপুর গ্রামের আবু হানিফের মেয়ে এম এ খালেক মেমোরিয়াল হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী জান্নাতুল নাঈম মিশু গত শুক্রবার দুপুরে বাড়ির পাশে ঘাস কাটতে যায়। কিন্তু বাড়িতে না ফেরায় বাড়ির লোকজন তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে।

ঘাস কাটার স্থলে গিয়ে সেখানে তার ওড়না, কাস্তে দেখতে পায়। আশে-পাশে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও মিশুকে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় কচুয়া থানায় একটি জিডি করা হয়।

নিখোঁজের দুদিন পর বাড়ির কাছেই একটি খালে মিশুর লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশ এসে তা উদ্ধার করে।

এ ঘটনার পরপর এলাকাবাসী দফায় দফায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে। মিশুর স্বজনদের দাবি মিশুকে ধর্ষণ শেষে হত্যা করা হয়েছে।

স্থানীয় কড়ইয়া ইউপি চেয়ারম্যান আহসান হাবিব জুয়েলসহ এলাকাবাসী আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান।

কচুয়া থানার ওসি ওয়ালিউল্লাহ অলি বলেন, ‘আমরা লাশটি উদ্ধার করে সুরোতহাল করে আজ সোমবার ময়না তদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

হাসপাতালের একজন চিকিৎসক না প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘আমরা ওই শিশুটির ময়নাতদন্ত করে ধর্ষণের আলামত পেয়েছি।’

আপনার মন্তব্য