নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৮ বরযাত্রী নিহত

14
নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৮ বরযাত্রী নিহত

দেশজুড়ে ডেস্ক: নরসিংদীর শিবপুরে মাইক্রোবাসের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আট বরযাত্রী নিহত হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার সোনাইমুড়ি টিলা এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় বর-কনেসহ ১৩ জন আহত হয়।

নিহতরা হলো চাঁদপুরের মতলব উপজেলার ষাটনল গ্রামের সুজন বর্মণ (৩০), তার স্ত্রী মিতু রানী বর্মণ (২৫), মেয়ে স্নিগ্ধা রানী বর্মণ (৫), ক্যামেরাম্যান সজল বর্মণ (২৫), শুভ বর্মণ (৩০), নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের বৃষ্টি রানী (৬), রূপগঞ্জের সৌরভ বর্মণ (১২) ও নরসিংদীর রায়পুরার প্রান্তিকা বর্মণ (৬)। নিহতরা সবাই মাইক্রোবাসের যাত্রী।

আহতরা হলো নরসিংদীর রায়পুরার মো. আমজাদ হোসেন, রুমা রানী বর্মণ, সুমা বর্মণ, সায়ন্তিকা, চাঁদপুরের মতলবের নিলতা বর্মণ, অনিক চন্দ্র বর্মণ, বিক্রম চন্দ্র বর্মণ, সজল, রাজীব বর্মণ, ঢাকার ডেমরার দেলোয়ার হোসেন, নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের শামসুজ্জামান, মুন্সীগঞ্জের সোহাগ ও কিশোরগঞ্জের জমশেদ।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, মিতালী পরিবহনের একটি বাস ঢাকা থেকে সিলেটের দিকে যাচ্ছিল। সোনাইমুড়ি টিলা এলাকায় পৌঁছলে বাসটির সামনের একটি চাকা ফেটে যায়। এতে চালক বাসের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন।

একপর্যায়ে বাসটির সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা বরযাত্রীবাহী একটি মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই মাইক্রোবাসের যাত্রী স্নিগ্ধা, প্রান্তিকা ও বৃষ্টি নিহত হয়। এ সময় বর-কনেসহ বাস ও মাইক্রোবাসের ১৮ জন আরোহী আহত হয়।

স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক আহত আরেকজনকে মৃত ঘোষণা করেন। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে আহত বাকি ১৭ জনকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। তবে পথিমধ্যে আরো চারজনের মৃত্যু হয়।

তিনি বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত বাসটি আটক করা গেলেও চালক পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। স্বজনদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতির ভিত্তিতে নিহতদের মরদেহ বিনা ময়নাতদন্তে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বর রাজীব বর্মণের আত্মীয় লক্ষণ বর্মণ জানান, রাজীব বর্মণের সঙ্গে রুমা রানী বর্মণের বিয়ে উপলক্ষে তারা চাঁদপুরের ষাটনল গ্রাম থেকে বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসটি নিয়ে নরসিংদীর রায়পুরার নবোয়ারচর গ্রামে এসেছিলেন। গত সোমবার রাতে বিয়ে শেষে সকালে তারা কনে নিয়ে ওই মাইক্রোবাসে করে বাড়িতে ফিরছিলেন।

সূত্র: বণিক বার্তা

আপনার মন্তব্য