পায়ে পা লাগায় হত্যা!

63
পায়ে পা লাগায় হত্যা!

দেশজুড়ে ডেস্ক: রামগড়ে বহুল আলোচিত ফারুক  হত্যাকাণ্ডের ২০ দিন পর কালাডেবা এলাকা থেকে প্রধান আসামি মৃদুলকে আটক করেছে রামগড় থানা পুলিশ। গতকাল শনিবার তাকে আটক করা হয়।

সামান্য বিষয় নিয়ে ফারুককে হত্যা করে মৃদুল। আটক মৃদুল কান্তি ত্রিপুরা আকাশ (১৮)  পৌরসভাধীন ৭নম্বর পৌর ওয়ার্ডের কালাডেবা এলাকার  উপেন্দ্র ত্রিপুরার ছেলে।

রামগড় থানা পুলিশ জানায়, ঘটনার কয়েকদিন আগে আসামি মৃদুল ঘটনাস্থলের কিছু দূরে ব্রিজের উপর রাতে দুই পা মেলে মোবাইলে কথা বলছিল। ওই রাস্তা দিয়ে ফারুক হেঁটে যাওয়ার সময় মৃদুলের পায়ের সাথে আঘাত লাগলে মৃদুল দুঃখ প্রকাশ করে। তারপরও ফারুক মৃদুলকে চড় মারে। এ ঘটনায় ক্ষোব্ধ হয়ে ফারুককে উচিৎ শিক্ষা দেওয়ার পরিকল্পনা করে মৃদুল।

ঘটনার দিন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির মধ্যে ওমর ফারুক ছাতা মাথায় মোবাইলের হেডফোনে কথা বলতে বলতে বাড়ি ফিরছিলো। ফারুক ঘটনাস্থলে ব্রিজের উপর অপেক্ষারত মৃদুলকে অতিক্রম করে চলে গেলে মৃদুল পিছু নেয় এবং কাঠের টুকরো দিয়ে ফারুকের মাথায় সজোরে আঘাত করে।

ফারুক মাটিতে পড়ে অচেতন হয়ে গেলে আসামি মৃদুল ফারুকের ব্যবহৃত মোবাইলটি নিয়ে পালিয়ে যায়। ফারুকের মাথা ফেটে প্রচুর রক্তক্ষরণের ফলে চট্টগ্রাম মেডিক্যালে রাতে মারা যায়।

রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সামসুজ্জামান বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি মৃদুল কান্তি ত্রিপুরা আকাশ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। আসামির বিরুদ্ধে রামগড় থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য