প্রেমিকের সাথে পালানোর পথে গণধর্ণের শিকার তরুণী

53
প্রেমিকের সাথে পালানোর পথে গণধর্ণের শিকার তরুণী

দেশজুড়ে ডেস্ক: গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নে দশম শ্রেণির এক ছাত্রী রবিবার গভীর রাতে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। পরে রাত সোয়া তিনটায় গোবিন্দগঞ্জ থানায় ধর্ষিতা অভিযোগ করার সঙ্গে সঙ্গেই অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত ৫ ধর্ষককে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার নাওভাংগা এলাকার মৃত নীল মাহমুদের ছেলে এনামুল হক (৩০), আজিম উদ্দিনের ছেলে রেজাউল করিম (৩২), ভোলা মিয়ার ছেলে ধলু মিয়া (২৫), এজদুর রহমানের ছেলে সুমন মিয়া (২৩) ও সাহারুল কাজীর ছেলে  সাদ্দাম ওরফে সুজন কাজী (২৬)। তারা এলাকায় চিহ্নিত বখাটে হিসেবে পরিচিত।

পুলিশ জানায়, উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের ওই ছাত্রী তার প্রেমিকের সাথে রবিবার রাত ১২টায় বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়ার পথে ৫ দুর্বৃত্তের খপ্পরে পড়ে। তারা প্রেমিককে মারপিট করে তার কাছ থেকে ওই ছাত্রীকে ছিনিয়ে নিয়ে নাওডাঙ্গা গ্রামে ধর্ষক ধলু মিয়ার বাড়িতে নিয়ে আটকে রাখে।

পরে ওই বাড়িতেই রাত দুটো পর্যন্ত ৫ ধর্ষক ছাত্রীটিকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এরপর রাত সোয়া তিনটার দিকে ঘটনার শিকার প্রেমিক-প্রেমিকা গোবিন্দগঞ্জ থানায় এসে বিষয়টি অবহিত করে। অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই এসআই মামুনের নেতৃত্বে গোবিন্দগঞ্জ থানার পুলিশের একটি টিম তাদেরকে নিয়ে অভিযান চালিয়ে ধর্ষকদের আটক করে।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি এ কে এম মেহেদী হাসান জানান, থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা, জুডিশিয়াল জবানবন্দি ও আসামিদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য