বাগাড়েই লাখপতি পদ্মা পাড়ের জেলে ওয়ালিউর

2
বাগাড়েই লাখপতি পদ্মা পাড়ের জেলে ওয়ালিউর

স্টাফ রিপোর্টার, বাঘা: রাজশাহীর পদ্মা থেকে ৪০ কেজির বাঘাইড় পাওয়ার পর আজ সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) ফের ৯ কেজি ওজনের রুই ও সাড়ে তিন কেজি ওজনের বাঘাইড় উঠেছে ওয়ালিউর রহমানের জালে। ৯০০ টাকা কেজি দরে রুইমাছটি বিক্রি করেছেন আট হাজার ১০০ টাকায়। আর ৩৫০ টাকা দরে বাঘাইড়টি বিক্রি করে এক হাজার ২২৫ টাকা দাম পেয়েছেন এই জেলে।

এর আগের দিন ৪০ কেজি ওজনের মাছটি তিনি ৩৪ হাজার টাকায় বিক্রি করেছেন।

কয়েক দিন আগেও এই পদ্মায় পাঁচটি বাগাড় পেয়েছিলেন ওয়ালিউর; যেগুলোর ওজন ছিল ৭৬ কেজি। সব মিলিয়ে পাঁচদিনে প্রায় দুই লাখ টাকার বাগাড় বিক্রি করলেন কালিদাসখালী চরের এই জেলে।

জানা গেছে, উপজেলার চকরাজাপুর পদ্মায় দীর্ঘদিন ধরে জাল দিয়ে মাছ শিকার করেন ওয়ালিউর রহমান। তিনি কয়েক দিন আগেও তার জালে পাঁচটি বাগাড় ধরা পড়েছিল।

রোববার সকালে ৪০ কেজি ওজনের আরও একটি বাগাড় মাছ ধরেন তিনি। মাছটি প্রতিকেজি ৮৫০ হিসেবে বিক্রি করেছেন। ৩৪ হাজার টাকায় মাছটি কিনেছেন চকরাজাপুর চরের মাছ ব্যবসায়ী করম আলী। তিনি মাছটি ঢাকায় নিয়ে বিক্রি করবেন বলে জানিয়েছেন।

ওয়ালিউর রহমান যুগান্তরকে বলেন, এই মৌসুমে ইলিশের তেমন দেখা মেলেনি। তবে বাগাড় মাছ ভালো পেয়েছি। গত পাঁচদিনে আমি প্রায় দুই লাখ টাকার বাগাড় বিক্রি করেছি। ইলিশের চেয়ে এই মাছের দামও ভালো পাচ্ছি। বিক্রি করতেও তেমন অসুবিধা হয় না। ব্যাপারিকে খবর দিলিই ঘাট থেকে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত মৎস্য কর্মকর্তা আমিরুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, উপজেলার মধ্যে ২৬ কিলোমিটার পদ্মা নদী রয়েছে। জেলে আছে এক হাজার ৩০৭ জন। এর মধ্যে নিবন্ধন করা জেলে রয়েছে ৮৮৫ জন। তবে বড় মাছ পাওয়ার কারণে জাটকা ধরার প্রবণতা কমে গেছে। জেলেরা এখন পদ্মায় প্রতিনিয়ত বড় মাছ ধরছেন।

আপনার মন্তব্য