বাসযাত্রীর স্যান্ডেলে দেড় কেজি সোনা

5

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে বাসযাত্রীর স্যান্ডেলের ভেতর থেকে এক কেজি ৪০০ গ্রামের ১২টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়েছে।

 বুধবার বিকল ৫টার দিকে জেলার পুঠিয়া উপজেলার বেলপুকুর চেকপোস্টে বিজিবি আলাল (৪৫) নামের ওই বাস যাত্রীকে আটক করে। 

 আলাল ঢাকার ধামরাই থানার চৌহাট এলাকার মৃত লালর মিয়ার ছেলে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিকে একে একে আরো দুই জনকে আটক করে বিজিবি।

এরা হলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার নয়নশুকা কামারপাড়া গ্রামের বাদল কর্মকারের ছেলে শুভ্র কর্মকার (২৭) এবং বারঘরিয়া হালদারপাড়া গ্রামের দিনেশ হালদারের ছেলে মিলন হালদার (২৮)।

ঢাকা থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জগামী একটি বাসের যাত্রী ছিলেন আলাল। অন্যরা তার সহযোগী। পরে এই ঘটনায় নগর পুলিশের বেলপুকুর থানায় মামলা দায়ের করেছে বিজিবি।

বিজিবি জানিয়েছে, এক বাস যাত্রীর যাত্রীর পায়ের চামড়ার স্যান্ডেলের ভেতর ছিল সোনাগুলো। এগুলোর ওজন এক কেজি ৩৯৯ গ্রামের একটু বেশি।

চেক পোস্টে তল্লাশিকালে ওই বাসযাত্রীকে আটক করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে আরও দুইজনকে আটক করা হয়।

বিজিবির রাজশাহীর ১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ জানান, ঢাকার আলাল সোনার বারের চালানটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ নিয়ে যাচ্ছিলেন।

তাকে আটকের পর চোরাচালান সিন্ডিকেটের অন্য দুই সদস্যের খোঁজ পাওয়া যায়। এরপর অভিযান চালিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ওই দুইজনকেও আটক করা হয়।

তিনি জানান, আটক তিনজন উদ্ধার করা সোনার বারের বৈধ কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। তাই সরকারি শুল্ক ফাঁকি দিয়ে সোনা চোরাচালানের অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছে।

বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির রাজশাহী শাখা বিজিবিকে জানিয়েছে, প্রতিটি সোনার বার ২৪ ক্যারেটের। এগুলোর মূল্য ৮১ লাখ ৬০ হাজার টাকা।

সোনাগুলো জেলা প্রশাসকের ট্রেজারি শাখায় জমা দেয়া হবে। আটক তিনজনকে বেলপুকুর থানায় হস্তান্তর করে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য