রাত ১২টায় মামলা, ভোররাতে আসামি গ্রেফতার

5
এম‌সি ক‌লেজ ছাত্রাবা‌সে স্বামী‌কে আট‌কে স্ত্রী‌কে গণধর্ষণ
ফাইল ছবি

নওগাঁ: নওগাঁর নিয়ামতপুরে এক গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে কামরুজ্জামান (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী বাদী হয়ে মামলার দায়েরের চার ঘণ্টা পর সোমবার (১৬ নভেম্বর) ভোরে অভিযুক্তকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি উপজেলার ভাবিচা ইউনিয়নের ভালাতৈড় (ফাটকিপাড়া) গ্রামের মৃত মোস্তফার ছেলে।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী গৃহবধূর (২০) দিনমজুর স্বামী কাজের জন্য সারাদিন বাড়ির বাইরে থাকেন। গত ১১ অক্টোবর বাড়ির পাশে মাঠে হাঁস খুঁজতে যাওয়ার সময় কামরুজ্জামান তাকে জোর করে সেচ পাম্পের ঘরে (মর্টার) নিয়ে যান।

পরে মুখে গামছা চেপে ধর্ষণের চেষ্টা করলে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। কামরুজ্জামান তাকে ঘরের ভেতরে রেখে দরজা বন্ধ করে পালিয়ে যান।

গৃহবধূ জ্ঞান ফিরে দেখেন ঘরের দরজা বাইরে থেকে আটকানো। এতে তিনি চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করেন। তার চিৎকার শুনে তার জা ও প্রতিবেশীরা তাকে ঘরের তালা ভেঙে উদ্ধার করেন।

কামরুজ্জামান দীর্ঘদিন থেকে ওই সেচপাম্প দিয়ে জমিতে পানি সেচ করে আসছেন। ঘটনার পর তিনি বিভিন্নভাবে গৃহবধূ ও তার স্বামীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিলেন।

ভুক্তভোগী পরিবারটি থানায় যেতে না পরে স্থানীয়ভাবে মিমাংসার জন্য নেতাদের পিছে ঘুরতে থাকেন। কোথাও কোনো বিচার না পেয়ে অবশেষে থানায় মামলা দায়েরের চার ঘণ্টার মধ্যেই পুলিশ আসামি কামরুজ্জমানকে গ্রেফতার করে।

নিয়ামতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ন কবির বলেন, রোববার (১৫ নভেম্বর) রাত ১২টায় গৃহবধূ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন।

ভোর ৪টায় কামরুজ্জামানকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। সোমবার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মন্তব্য