পঞ্চগড়ে ঘুরতে গিয়ে প্রেমিক ও তার বন্ধুর দ্বারা ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক স্কুলছাত্রী (১৬)। পরে সাহায্য চেয়ে আরও কয়েজন কর্তৃক দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে।

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী: রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন স্বামী পরিত্যক্তা এক তরুণী (২২)। শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নের ধামিলা লাড্ডুর মোড় এলাকার মুন্টির বাগানে এই ঘটনা ঘটে।


পাশবিকতার শিকার ওই তরুণী জেলার তানোর উপজেলার বাসিন্দা। তিনি রাজশাহী নগরীর শাহামখদুম এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করছিলেন।
এই ঘটনায় রাতেই তিন অভিযুক্তকে পাকড়াও করেছে পুলিশ।

এরা হলেন- রাজশাহী নগরীর দামকুড়া থানার বিন্দারামপুর গ্রামের মোকসেদ আলীর ছেলে মো. আবদুস শুকুর (৪০), গোদাগাড়ী উপজেলার ধামিলা গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে রনি (৩০) এবং একই এলাকার মৃত. আবু জাকিরের ছেলে বাবু (৪৫)।


রোববার সকালে এই ঘটনায় গোদাগাড়ী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন ভূক্তভোগী তরুণী। আটক ওই তিন জনকে এই মামলায় গ্রেফতার দুপুরের দিকে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।


ভুক্তভোগী তরুণীর বরাত দিয়ে গোদাগাড়ী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাইরুল ইসলাম বলেন, ওই তিন জনের সঙ্গে ভুক্তভোগী তরুণীর পূর্ব পরিচয় ছিলো। তারা এক সঙ্গে সবজির ব্যবসা করতেন।

হিসাব-নিকাশের কথা বলে ডেকে নিয়ে ওই তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে অভিযুক্তরা।


অভিযোগ পেয়ে রাতেই নগরীর কাশিয়াডাঙ্গ ও দামকুড়া থানা পুলিশের সহায়তায় অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়। ওই তরুণীর দায়ের করা মামলায় রোববার দুপুরের দিকে তাদের আদালতে নেয়া হয়েছে।

এছাড়া ওই তরুণীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply