ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যেই ভ্যান চালককে খুন, দুই আসামীর স্বীকারোক্তি

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী: ব্যাটারি চালিত ভ্যান ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে রাজশাহীর চারঘাটে ভ্যানচালক জালাল উদ্দিনকে (৬০) হত্যা করা হয়েছে। এরই মধ্যে হত্যাকাণ্ডে জড়িত দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দিও দিয়েছেন।

এরা হলেন-চারঘাটের আস্কারপুর এলাকার মৃত রোস্তম আলীর ছেলে মিনুরুল ইসলাম (৩০) ও একই এলাকার মৃত মোকসেদ আলীর ছেলে মাসুদ রানা (৩২)।

গত ৩ নভেম্বর আস্কারপুর এলাকা থেকে মিনুরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পরদিন ৪ নভেম্বর চারঘাটের সারদা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় মিনুরুলের সহযোগী মাসুদ রানাকে। পরে আদালতে তারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাদের রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জেলা পুলিশের মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গত ৯ অক্টোবর সন্ধ্যার পর উপজেলার পশ্চিম বালিয়াডাঙ্গা এলাকা থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় উপজেলার মেরামতপুরের বাসিন্দা জালাল উদ্দিনকে উদ্ধার করেন স্থানীয়রা। উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এই ঘটনায় ১০ অক্টোবর নিহতের ছেলে আবদুল মানিক বাদি হয়ে চারঘাট মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর ৮। মামলা দায়েরের পর বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। নিবীড় তদন্তে উঠে আসে মিনুরুলের সম্পৃক্ততা।

গত ৩ নভেম্বর আস্কার পুর এলাকা থেকে মিনুুরুলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে মিনুরুলের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয় চারঘাটের সারদা এলাকা থেকে ৪ নভেম্বর অপর আসামী মাসুদ রানাকে। দুজনই আদালতে হত্যাকাণ্ডের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পুরো এই অভিযানে নেতৃত্ব দেন চারঘাট সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার নূরে আলম।

ইফতেখায়ের আলম আরো বলেন, গ্রেফতারকৃতরা ৯ অক্টোবর বিকেলে সারদা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ভ্যান ছিনতাইয়ের পরিকল্পনা করেন। এরপর ওই দিনই সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে চারঘাট চৌরাস্তার মোড় থেকে ঝিকড়া যাবার উদ্দেশ্যে জালাল উদ্দিনের ভ্যানে ওঠেন।

পৌনে ৭টার দিকে তারা বালিয়াডাঙ্গা এলাকার একটি আমবাগানের পাশে নির্জন রাস্তায় পৌঁছান। সেখানেই তারা ভ্যানচালক জালাল উদ্দিনের গলার ডান পাশে ছুরিকাঘাত করেন। আক্রান্ত ভ্যানচালক চিৎকার শুরু করলে পালিয়ে যান আসামীরা। তদন্তে পরে পুলিশের হাতে আটকা পড়েন তারা।

Leave a Reply