পোরশা: এ বছর দেশে রেকর্ড পরিমাণ খাদ্য মজুত করা হয়েছে, তাই সঙ্কটের কোনো সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

তিনি বলেছেন, ‘দেশে পর্যাপ্ত খাদ্য মজুত থাকায় এরই মধ্যে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির (ওএমএস) কার্যক্রম দ্বিগুণ করা হয়েছে। সেপ্টেম্বর থেকেই ওএমএস’র আওতায় চাল বিতরণ শুরু হবে।’

সোমবার (২ আগস্ট) বেলা ১১টায় নওগাঁর পোরশা উপজেলার নিতপুর লোকাল সাপ্লাই ডিপো (এলএসডি) পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সারাদেশে পুরোদমে ধান-চাল সংগ্রহ চলছে। খাদ্য মজুতের জায়গার অভাব হবে না। কোথাও কেউ খারাপ চাল দিলে তা রিজেক্ট করা হচ্ছে। কেউ সরকারি সংগ্রহে মানহীন চাল-ধান সরবরাহ করলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

পরিদর্শনকালে আরও উপস্থিত ছিলেন রাজশাহীর আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক জি এম ফারুক হোসেন পাটোয়ারী, জেলা খাদ্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলমগীর কবীর, পোরশা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ শাহ মঞ্জুর মোরশেদ চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল হামিদ রেজা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান কাজিবুল ইসলামসহ খাদ্য বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তা।

পরে খাদ্যমন্ত্রী উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে করোনা প্রতিরোধ কমিটির এক মতবিনিময় সভায় যোগ দেন। সভার শুরুতে শোকাবহ আগস্টে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সদস্যদের নির্মম হত্যাকাণ্ড স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

সভা শেষে খাদ্যমন্ত্রী দুপুরে উপজেলার নিতপুর ইউনিয়নের গোপালগঞ্জ আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শন এবং সেখানে বসবাসরত পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন।

Leave a Reply