এবার রাবি অধ্যাপকের বিরুদ্ধে এমপি শিমুলের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী: এবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. সরকার সুজিত কুমারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন নাটোর-২ (সদর-নলডাঙ্গা) আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) শফিকুল ইসলাম শিমুল। 

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রোববার (৮ আগস্ট) রাত ১১টার দিকে তিনি রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় এই অভিযোগ দাখিল করেন।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, রাতে শফিকুল ইসলাম শিমুল নিজেই বোয়ালিয়া মডেল থানায় উপস্থিত হয়ে অভিযোগটি দাখিল করেছেন। বিধি অনুযায়ী অভিযোগ যাচাই-বাছাই করে আইনগত ব্যবস্থা নেবে পুলিশ। 

বীর মুক্তিযোদ্ধা ও গবেষক ড. সরকার সুজিত কুমারের গ্রামের বাড়ি নাটোরের সিংড়া উপজেলার কুমগ্রাম এলাকায়। পরিবার নিয়ে রাজশাহী নগরীর কুমারপাড়া এলাকায় বসবাস করেন তিনি।

লিখিত অভিযোগে এমপি শফিকুল ইসলাম শিমুল উল্লেখ করেন, তাকে সস্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে অনলাইন সংবাদপত্র ও টেলিভিশনে মানহানিকর বক্তব্য দেন ড. সরকার সুজিত কুমার ।

যা ডিজিটাল মাধ্যমে প্রকাশিত হয়ে তার সুনাম ও সম্মানহানি ঘটেছে। তাকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হেয় করতে পূর্বপরিকল্পিতভাবে তিনি মিথ্যা ও মানহানিকর বক্তব্য দিয়েছেন। যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও প্রচার হয়েছে।

এই অপপ্রচারের ফলে তার নির্বাচনী এলাকার সমর্থক ও নেতাকর্মীদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ নিয়ে নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ারও শঙ্কা জানিয়েছেন এমপি।

এর আগে গত ২৯ জুলাই নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুলের হয়ে  প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ এনে বোয়ালিয়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন ড. সরকার সুজিত কুমার। তবে তদন্ত শেষে সেই অভিযোগের সত্যতা পায়নি পুলিশ। 

ওই জিডিতে ড. সরকার সুজিত কুমার উল্লেখ্য করেন, মহান মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক তার রচিত চারটি গ্রন্থের মধ্যে একটি ‘নাটোর জেলার ইতিহাস এতিহ্য ও মুক্তিযুদ্ধ’ অন্যতম। ২০০৮ সালে এ গ্রন্থটি প্রকাশ করা হয়। পরের বছর ২০১০ সালে গ্রন্থটি প্রথম সংস্করণ প্রকাশ পায়। এরপর ২০২১ সালের বই মেলায় প্রকাশ পায় দ্বিতীয় সংস্করণ।

প্রথম গ্রন্থ প্রকাশের ৩১০ পৃষ্ঠায়, প্রথম সংস্করণের ৩৬১ পৃষ্ঠায় এবং দ্বিতীয় সংস্করণের ৬০০ পৃষ্ঠায় রাজাকার হাসান আলীর নাম মুদ্রিত হয়েছে। যিনি এমপি শফিকুল ইসলাম শিমুলের বাবা। 

অবশ্য ড. সরকার সুজিত কুমার দাবি করেন, নাটোর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ গঠন নিয়ে নিজেদের মধ্যে মতবিরোধ সৃষ্টি হলে তার রচিত বইটি আলোচনায় আসে। এরপর এমপি শিমুলের পক্ষ নিয়ে ইতোমধ্যেই তাকে কিছু অপরিচিত সন্ত্রাসী বারবার জীবননাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। 

তবে শুরু থেকেই এ তথ্য ভিত্তিহীন দাবি করে আসছিলেন এমপি শফিকুল ইসলাম শিমুল। আপত্তিকর তথ্য দেওয়ায় ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করার কথাও জানান তিনি।

Leave a Reply