বাসায় বসে টিকা নিলেন তানোর উপজেলা চেয়ারম্যান

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী: করোনা ভ্যাকসিন দেয়ায় অনিয়মের অভিযোগে শাস্তির মুখে পড়েছেন রাজশাহীর তানোর ও বাগমারা উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (টিএইচও)। বুধবার (১১ আগস্ট) তাদের দুজনকেই কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে জেলা সিভিল সার্জন দফতর।

ওয়ার্ড পর্যায়ে টিকাদানের উদ্বোধনীতে স্থানীয় এক বৃদ্ধের শরীরে টিকা পুশ করেন রাজশাহী-৪ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হকে। গত ৭ আগস্টের ওই ঘটনায় বাগমারার টিএইচও ডা. গোলাম রাব্বানী ছাড়াও সেখানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অনিল কুমার সরকার এবং ইউএনও শরিফ আহম্মেদ প্রমুখ।

অন্যদিকে, গত ১০ আগস্ট পৌর সদরের নিজ সরকারী বাসায় বসে করোনার টিকা নেন তানোর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না। টিএইচও বার্নাবাস হাঁসদাক চেয়ারম্যানের বাসায় ভ্যাকসিনসহ পোর্টার নিশান মণ্ডল ও ইপিআই মেডিকেল টেকনিশিয়ান জহির উদ্দিনকে পাঠান। জহির টিকা সাথে থাকলেও টিকা পুশ করেন পোর্টার নিশান মণ্ডল।

এই দুটি ঘটনার ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এনিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। এরই প্রেক্ষিতে এই দুই টিএইচও শাস্তির মুখে পড়েছেন।

সিভিল সার্জন দফতর জানিয়েছে, প্রশিক্ষিত না হয়েও ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক কীভাবে টিকা পুশ করলেন সেই ব্যাখা চাওয়া হয়েছে বাগমারার টিএইচওর কাছে। অন্যদিকে, কিভাবে টিকাদান কেন্দ্রের বাইরে টিকা গেলো এবং পোর্টার টিকা পুশ করলেন সেটির ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে তানোরের টিএইচওর কাছে।

নিজের কারণ দর্শানোর ঘটনা স্বীকার করেছেন তানোরের টিএইচও ডা. বার্নাবাস হাঁসদাক। তিনি বলেন, এনিয়ে সিভিল সার্জনের সাথে তার কথা হয়েছে। তিনি ওই ঘটনার ব্যাখা চেয়েছেন। এনিয়ে তার অফিসে চিঠি পাঠানো হয়েছে। তিনি এখন ঢাকার পথে থাকায় চিঠিটি দেখেননি। যোগাযোগ করা হলে এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি বাগমারার টিএইচও ডা. গোলাম রাব্বানী।

তবে জেলার সিভিল সার্জন ডা. কাইয়ুম তালুকদার বলেন, দুটি ঘটনার ব্যাপারেই ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। শুধু এটুকুই বলতে পারি। এর বেশি কিছু বলা যাবে না।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাবিবুল আহসান তালুকদার বলেন, দুই উপজেলার দুটি ঘটনা আমার দৃষ্টিতে আসার পর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সিভিল সার্জনকে বলে দিয়েছি। তিনি শোকজও করেছেন। আশা করছি দুই-এক দিনের মধ্যে লিখিত ব্যাখ্যা পেয়ে যাব। তারপর পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Leave a Reply