চাঁপাইনবাবগঞ্জ: চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে ডাকাতির ঘটনায় ছেলের অপারেশনের ২ লাখ ২০ হাজার টাকা হারিয়ে অঝোরে কাঁদছেন মা। বাড়ির শেষ সম্বল বিক্রি করে ছেলের অপারেশনের জন্য টাকা নিয়ে ঢাকা যাচ্ছিলেন তিনি। 

কিন্তু গাড়ি ছাড়ার পর ৬ কিলোমিটার পথ পেরুলেই এমন ঘটনা ঘটবে স্বপনেও ভাবেননি মা নুসিয়া। কি হবে তার ছেলের। নুসিয়া (৪৩) উপজেলার খাল-আলীমপুর এলাকার হুমায়ুনের স্ত্রী। 

নুসিয়া জানান, সোমবার (২৩ আগস্ট) রাতে ঢাকার উদ্দেশ্যে ভোলাহাট থেকে রওনা হই।  সোনাজল নামক স্থানে আসলে চলন্ত বাস গতিরোধ করে ডাকাতরা বাসে উঠেই ড্রাইভারকে মারধর করে। এসময় পাশে এক নম্বর সিটে বসেছিলাম আমি।

ডাকাতরা আমার কাছে এসে আমার কানের স্বর্ণালংকার খুলতে বললে আমি বলি এগুলো পিতলের। তখন আমার গলাই দেশীয় হাসুয়া ধরে ২ লাখ ২০ হাজার টাকাসহ সব কিছু ছিনিয়ে নেয়। আমি হাল বাহা টিলার বিক্রি করে টাকা নিয়ে যাচ্ছিলাম ছেলের অপারেশন জন্য। এসময় আমাকে অনেক মারধর করা হয়।  

তিনি আরো জানান, আমার ছেলের পায়ের একটা রগ ছেড়া তাই ঢাকায় একটি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। এখন আমার ছেলেকে আমি কিভাবে ভালো করব। তাহলে কি আমার ছেলে আর ভালো হবে না।

ভোলাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান জানান, এ ঘটনায় ৫ জনকে আটক করা হয়েছে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আর জড়িতদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এর আগে সোমবার (২৩ আগস্ট) রাতে ভোলাহাটে ঢাকাগামী নৈশকোচ, ট্রাক ও মোটরসাইকেলসহ ৩০টির বেশি যানবাহনে গণডাকাতির ঘটনা ঘটে।  

Leave a Reply