স্ত্রী রান্না করতে দেরি, দলায় দড়ি স্বামীর

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী: রাজশাহীর বাগামারায় শিরিনা খাতুন (২৮) নামের এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর ) সকালে উপজেলার গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের চেউখালী এলাকার স্বামীর বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

 শিরিনা খাতুন ওই গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের (৩৩) স্ত্রী। এই ঘটনায় নিহত শিরিনা খাতুনের ভাই মাসুদুর রহমান বাদী হয়ে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মামলা করেছেন। ওই মামলায় হাফিজ উদ্দিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

জানা গেছে, বছর খানেক আগে হামিরকুৎসা ইউনিয়নের মাঝগ্রামের আবদুল জব্বারের মেয়ে শিরিনা খাতুনের সাথে চেউখালী গ্রামের ভ্যানচালক হাফিজ উদ্দিনের বিয়ে হয়। এটি দুজনেরই তৃতীয় বিয়ে।

বিয়ের পর থেকে স্বামীর পরিবারের সাথে শিরিনা খাতুনের মনোমালিন্য চলছিল। এনিয়ে অশান্তি চরমে পৌঁছায়। সম্প্রতি দু দফা আত্মহত্যার চেষ্টাও চালান ওই গৃহবধূ।

সকাল ৯টার দিকে ভ্যান নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন হাফিজ উদ্দিন। এই সময় নিজ শোবার ঘরে সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দেন শিরিনা। 

প্রতিবেশী এক শিশু তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পায়। জানাজানি হবার পর খবর দেয়া পুলিশে। পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মরদেহ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া এনিয়ে নিহতের ভাই বাদি হয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করা করেছেন। পুলিশ ওই মামলায় নিহতের স্বামীকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে। শনিবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে নেয়ার কথা।

Leave a Reply