এই ভিডিওটি দেশের সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে। বিষয়টি আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। ভিডিওতে মুফতি ইব্রাহিমকে দেখা যায় একটি ওয়াজ মাহফিলে বক্তৃতা করছেন। এ বিষয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কাজি মুফতি মোহাম্মদ ইব্রাহিমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, 'যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সেটি সম্ভবত ১০-১২ বছর আগের। আমি মাহফিলে যে বক্তব্য দিয়েছি, সেটি বলেছিলেন গাদ্দাফি। উনি বলেছিলেন আরবের যেসব পরিবার হিজরত করেছিল তাদেরই বংশধর। আমি গাদ্দাফির বক্তব্যেই শুনেছি।' তিনি বলেন, ইংরেজদের নামের পরিবর্তনের ধারায় শেকসপিয়ার নামটিও পরিবর্তন হয়েছে। যেমনটা পরিবর্তন হয়েছে ইসহাক থেকে আইজাক, ইবনে সিনা, এবেসিনা, ইউসুফ থেকে যোশেফ। এর আগে করোনাভাইরাস প্রসঙ্গে বলেছিলেন, মানুষ বিভিন্ন সময় ধারণা করে। সেই ধারণা ভুল হতে পারে, সেটা আংশিক বা পূর্ণাঙ্গ সত্যি হতে পারে। বিভিন্ন কারণ থেকে মানুষ কথা বলে, কিন্তু এসব তো রোখার সাধ্য নেই কারো।মানুষ নিজের পয়েন্ট অব ভিউ থেকে কথাগুলো বলে। যেমন- অনেকেই মন্তব্য করেছে ভাইরাস আবার কথা বলে নাকি? কিন্তু সে জানে না পৃথিবীর সব সৃষ্টিই কথা বলার পাওয়ার রাখে। হাশরের দিন এই মাটির পৃথিবী সমস্ত সংবাদ পরিবেশন করবে। করোনার টিকা নিয়ে বলেছিলেন, ফাইজার তুরস্কের একটি ছেলে আবিষ্কার করেছে। সে আসলে মুসলিম।

প্রিয় দেশ ডেস্ক: ইংরেজি ভাষার সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক উইলিয়াম শেকসপিয়র। বিশ্বের একজন অগ্রণী নাট্যকার মনে করা হয় তকে। 

শেকসপিয়রের জন্ম ও বেড়ে ওঠা স্ট্যাটফোর্ড অন-অ্যাভনে। অথচ ‘তিনি অ্যারাবিয়ান ছিলেন বলে মন্তব্য করেছেনআলোচিত মুফতি ইব্রাহিম। তার আসল নাম শেখ জুবায়ের বলেও দাবি করেন এই মুফতি।

এনিয়ে একটি ভিডিওটি দেশের সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে। বিষয়টি আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। 

ভিডিওতে মুফতি ইব্রাহিমকে দেখা যায় একটি ওয়াজ মাহফিলে বক্তৃতা করছেন। এ বিষয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কাজি মুফতি মোহাম্মদ ইব্রাহিমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সেটি সম্ভবত ১০-১২ বছর আগের। আমি মাহফিলে যে বক্তব্য দিয়েছি, সেটি বলেছিলেন গাদ্দাফি। উনি বলেছিলেন আরবের যেসব পরিবার হিজরত করেছিল তাদেরই বংশধর। আমি গাদ্দাফির বক্তব্যেই শুনেছি।’ 

তিনি বলেন, ইংরেজদের নামের পরিবর্তনের ধারায় শেকসপিয়ার নামটিও পরিবর্তন হয়েছে। যেমনটা পরিবর্তন হয়েছে ইসহাক থেকে আইজাক, ইবনে সিনা, এবেসিনা, ইউসুফ থেকে যোশেফ। 

এর আগে করোনাভাইরাস প্রসঙ্গে বলেছিলেন, মানুষ বিভিন্ন সময় ধারণা করে। সেই ধারণা ভুল হতে পারে, সেটা আংশিক বা পূর্ণাঙ্গ সত্যি হতে পারে। বিভিন্ন কারণ থেকে মানুষ কথা বলে, কিন্তু এসব তো রোখার সাধ্য নেই কারো।

মানুষ নিজের পয়েন্ট অব ভিউ থেকে কথাগুলো বলে। যেমন- অনেকেই মন্তব্য করেছে ভাইরাস আবার কথা বলে নাকি? কিন্তু সে জানে না পৃথিবীর সব সৃষ্টিই কথা বলার পাওয়ার রাখে। হাশরের দিন এই মাটির পৃথিবী সমস্ত সংবাদ পরিবেশন করবে।

করোনার টিকা নিয়ে বলেছিলেন, ফাইজার তুরস্কের একটি ছেলে আবিষ্কার করেছে। সে আসলে মুসলিম।

Leave a Reply