৮ দিনে রূপপুরে ৪ রুশ নাগরিকের মৃত্যু
পাবনা জেলা-যুগান্তর

পাবনা:  গত আট দিনে পাবনার ঈশ্বরদীতে নির্মাণাধীন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের গ্রিনসিটিতে ৪ জন রুশ নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে শনিবার চুকিন পাভেল (৫৯) ও টলমাচেফ ভায়াচেস্লাভের (৫০) মৃত্যু হয়। 

শনিবার ভোরে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পাভেল এবং সিঁড়ি বেয়ে নামার সময় পড়ে গিয়ে ভায়াচেস্লাভের মৃত্যু হয়।

এর আগে ২৮ জানুয়ারি এই আবাসিক ভবনে শাকিরভ শাকসিম (৩৯) ও বারচেনকো আলেক্সেই (৩৪) মারা যান।

ঈশ্বরদী থানা পুলিশের উপপরিদর্শক মো. মেহেদী মাছুম মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, চুকিন পাভেল রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্পের ‘টেস্ট রোসেম’ নামের একটি সাব ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নের নতুনহাট মোড়ে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের আবাসিক এলাকা গ্রিনসিটির একটি কক্ষে থাকতেন। 

শনিবার ভোর ৩টার দিকে তার ফ্ল্যাটের কক্ষে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন দুই সহকর্মী। পরে গ্রিনসিটি ও রূপপুর প্রকল্পসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের সাইট ইনচার্জ রুহুল কুদ্দুস জানান, অপর ঘটনাটি ঘটে শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে। ভায়াচেস্লাভ গ্রিনসিটি আবাসিকের ১২ নম্বর ভবনের একটি কক্ষ থেকে উপরে ১৪ তলায় ওঠেন।

পরে নিচে নামার সময় সিঁড়িতে পা ফসকে পড়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। খবর পেয়ে পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি রূপপুর প্রকল্পে রাশিয়ানদের মালিকানাধীন সাব-ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এসএমইউ-১ ইঞ্জিনিয়ারিং প্রতিষ্ঠানে ইন্সটলার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

ঈশ্বরদী থানার ওসি আসাদুজ্জামান বলেন, দুইজনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ দূতাবাসের মাধ্যমে তাদের দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

গত জানুয়ারিতে দুই দিনের ব্যবধানে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্পে কর্মরত দুই রুশ নাগরিকের মৃত্যু হয়। 

Leave a Reply