রামেক করোনা ইউনিটে ২ জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী: গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল (রামেক) কলেজ হাসপাতালে আরও দুজন মারা গেছেন। এই দুজনই রাজশাহী জেলার বাসিন্দা। শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে এরা মারা যান।

 রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গত ২৪ ঘন্টায় রামেক হাসপাতালে করোনা সংক্রমণে কোন রোগী মারা যাননি। তবে করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের আইসিইউ ও ২৯/৩০ নম্বর ওয়ার্ডে একজন করে মারা গেছেন। গত একদিনে ষাটোর্ধ একজন পুরুষ মারা গেছেন। মারা যাওয়া অন্যজন নারী। তার বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে।

এদিকে, ১৪৬ শয্যার রামেক করোনা ইউনিটে রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টা পর্যন্ত ভর্তি ছিলেন ৬৯ জন রোগী। একদিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ৬৮ জন। করোনা নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ৩৯ জন। করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১৬ জন। করোনা ধরা পড়েনি ভর্তি ১৪ জনের। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৭ জন। এই একদিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১২ জন রোগী।

বর্তমানে রাজশাহীর ৫০ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৫ জন, নওগাঁর ৪ জন, নাটোরের ৩ জন, পাবনার ৩ জন, কুষ্টিয়ার ২ জন, ঝিনাইদহের একজন এবং মেহেরপুরের একজন রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

এর আগে শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রামেক হাসপাতাল ল্যাবে ৯৪টি করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তাতে করোনা ধরা পড়েছে ৪২টিতে। তবে একই দিনে রামেক ল্যাবে ২৭৯টি নমুনা পরীক্ষায় ৭৭টিতে করোনা ধরা পড়েছে। 

রাজশাহী জেলার ২১৩টি নমুনা পরীক্ষায়  করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬১টিতে। রাজশাহীতে করোনা শনাক্তের হার ৩৩ দশমিক ৫৫ শতাংশ। একই ল্যাবে নাটোরের ৬২টি নমুনা পরীক্ষায় ১৫ টিতে করোনা ধরা পড়েছে। নাটোর জেলায় করোনা শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ১৯ শতাংশ।  এছাড়া জয়পুরহাট জেলার ৫টি নমুনা পরীক্ষা করে একটি জনের করোনা ধরা পড়েছে। জয়পুরহাটে করোনা শনাক্তের হার ২০ শতাংশ।

Leave a Reply