‘ঝামেলা কিনে’ সুখের খোঁজে সায়েম

প্রিয় দেশ ডেস্ক: ঝামেলা কিনে সুখের খোঁজ করছেন সায়েম আহমেদ নামে ময়মনসিংহের এক ব্যবসয়ী। ২০০০ সালে শহরের বাকৃবি রোডে ‘মেসার্স ঝামেলা কিনি’ নামে একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন।

ব্যতিক্রমী নামের ব্যবসার শুরুতে শহরের বিভিন্ন বাসা থেকে পুরাতন ফার্নিচার ক্রয় করা শুরু করেন। পরবর্তীতে তিনি ধীরে ধীরে তার দোকানে টিভি, ফ্রিজ, কম্পিউটার ক্রয়-বিক্রয় শুরু করেন।

শুধু ব্যবসায়ের এমন নামের ভিন্নতার ফলে ব্যবসায়ের শুরুতে তৎকালীন পৌরসভা থেকে প্রতিষ্ঠানটির ট্রেড লাইসেন্স পেতে তাকে অনেক বেগ পেতে হয়েছে।

যেহেতু সে অনেক প্রশানিক ব্যক্তিদের বাসার পুরাতন আসবাবপত্র ক্রয় করতেন সেই সুবাদে ওইসব ব্যক্তিদের সুপারিশে ট্রেড লাইসেন্স পেয়ে যান। এখন অবদি প্রতিষ্ঠানটি ওই নামেই পরিচালিত হচ্ছে।

ডিগ্রি প্রথম বর্ষে থাকা অবস্থায় সায়েম আহমেদ তার বাবাকে হারান অভাব অনটনের কারণে তার আর পড়াশুনা করা সম্ভব হয়নি। তখন থেকেই স্বল্প পুঁজি নিয়ে মেসার্স ঝামেলা কিনি নামে একটি প্রতিষ্ঠান দাঁড় করান।

ব্যবসার শুরুতে তিনি নিজে একা কাজ করতেন। তারপর ব্যবসায়ের প্রসার ঘটার সঙ্গে সঙ্গে কর্মচারী বাড়াতে থাকেন। বর্তমানে তার দোকানে নিয়মিত ৮-১০ জন কর্মচারী কাজ করেন।

প্রতিষ্ঠানটির এমন নাম দেওয়ার কারণ জানতে চাইলে সায়েম আহমেদ জানান, যখন বাসার জন্য কোনো নতুন আসবাবপত্র ক্রয় করা হয় তখন পুরোনো আসবাবপত্র বাসার জন্য একটি ঝামেলা হয়ে দাঁড়ায়। আর এমন ঝামেলা দূর করার আইডিয়া থেকে তার প্রতিষ্ঠানটির নাম দেন ‘মেসার্স ঝামেলা কিনি।’

তিনি বিভিন্ন স্থান থেকে পুরোনো আসবাবপত্র ক্রয় করে সেগুলোকে মেরামত করে ব্যবহার উপযোগী করে পুনরায় তা বিক্রি করে দেন।

এ ছাড়া তিনি জানান, তার ব্যবসায় থেকে মাসিক ১ লাখ টাকা মুনাফা আসে। বর্তমানে সায়েম আহমেদ স্ত্রী ও চার সন্তান নিয়ে সুখে জীবন-যাপন করছেন।

Leave a Reply