১৮ ঘণ্টায় নওগাঁয় সড়কে ঝরল পাঁচ প্রাণ

স্টাফ রিপোর্টার: ১৮ ঘণ্টার মধ্যে নওগাঁয় সড়কে প্রাণ হারিয়েছে ৫ জন। সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেল থেকে মঙ্গলবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল পর্যন্ত জেলার পত্নীতলা ও মান্দায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-জেলার সাপাহার সদরের গোডাউন পাড়ার নুরুল ইসলামের ছেলে ফরহাদ হোসেন (১৮), উপজেলার পিছলডাঙার মিলন হোসেনের ছেলে রেজওয়ান হোসেন (১৯) , পত্নীতলার নজিপুর নতুন হাট এলাকার জাহিদুল ইসলামের মেয়ে জারিফা খাতুন ( ৫), মহাদেবপুরের তাঁতারপুর এলাকার পুণাই সরকারের ছেলে পিনাকী সরকার (৩২) এবং একই উপজেলার দড়িয়াপুরের মৃত খলিল উদ্দিন এর  ছেলে শরিফুল ইসলাম (৩৭)।

জেলার পত্নীতলা উপজেলার নজিপুর-সাপাহার সড়কের বালুঘা এলাকায় দ্রুতগামী মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারায়। রাস্তার পাশের গাছের সঙ্গে ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মারা যান মোটরসাইকেল আরোহী ফরহাদ হোসেন।

উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেয়ার পর মারা যান আরেক মোটরসাইকেল আরোহী রেজওয়ান হোসেন। দুটি মোটরসাইকেলে এই দুজনসহ ৫ জন নজিপুরের দিকে যাচ্ছিলেন। পথে দুর্ঘটনায় মারা যান দুজন।

এদিকে, মোটরসাইকেল আরোহীকে বাঁচাতে গিয়ে পত্নীতলা থেকে নওগাঁগামী একটি বাস কাটাবাড়ি এলাকায় রাস্তায় উল্টে পড়ে যায়। এতে বাসযাত্রী জারিফা মারা যায়। এই দুর্ঘটনায় অন্তত: ৮ বাসযাত্রী আহত হয়েছেন। এদের মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছেন।

আলাদা এই দুর্ঘটনায় পুলিশ আইনত ব্যবস্থা নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুল আলম। 

অন্যদিকে, ভটভটির সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাই আরোহী পিনাকী সরকার ও শরিফুল ইসলাম মারা যান। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে নওগাঁ- রাজশাহী আঞ্চলিক মহাসড়কের মান্দার সাতবাড়িয়ায় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্বজনরা জানাচ্ছেন, এই দুজন মোটরসাইকেলে চেপে রাজশাহীর উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন। বিপরীতগামী ভটভটির সাথে সংর্ঘষে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান তারা। অবস্থা বেগতিক দেখে ভটভটি ফেলে পালিয়ে যান চালক।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি ) শাহিনুর রহমান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ভটভটিটি জব্দ করেছে। তবে চালক পলাতক। এনিয়ে আইনত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন।

Leave a Reply