স্টাফ রিপোর্টার: নওগার আত্রাইয়ে মায়ের উপর অভিযানে আত্মহত্যা করেছে আরমান হোসেন (১৪) নামের এক কিশোরী। মঙ্গলবার (২২ মার্চ) সকালে উপজেলার উলাবাড়িয়া এলাকা থেকে তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত আরমান হোসেন ওই গ্রামের উজ্জল সরদারের ছেলে। এই ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন আত্রাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল কালাম আজাদ। পরিবারের বরাত দিয়ে ওসি বলেন, সোমবার (২১ মার্চ) রাতে সেভেনআপ খাওয়া নিয়ে আরমান হোসেনকে তার বকাঝকা করেন মা। এরই জেরে নিজ শোবার ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে ওই কিশোর। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে। এনিয়ে পরে আইনত ব্যবস্থা নেয়া হয়।

স্টাফ রিপোর্টার: নওগাঁর আত্রাইয়ে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত কৃষক নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) রাতে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) নেওয়ার পথে মারা যান তিনি। এ ঘটনায় নিহতের পক্ষে থানায় মামলা দায়ের করলে তিনজনকে আটক করে পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জয়সাড়া গ্রামের আব্দুস ছামাদ ও মোজাম্মেল হক তারা একই বংশের কাকাতো ভাই। তাদের মধ্যে বসতবাড়ির ১২ শতক জমি-জমা নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছিল।

বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) বিকালে মোজাম্মেল হক বিরোধপূর্ণ ওই সম্পত্তি দখল করতে গেলে আব্দুস ছামাদ ও তার লোকজন বাধা দেন। এ সময় দু’পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে দেশীয় অস্ত্র ও লোঠিসোডা নিয়ে সংঘর্ষ হয়। এতে ১২ জন আহত হন।

এ সময় আব্দুস ছামাদ, গোলাম মোস্তফা, আব্দুর সবুর, বাধন সাহ, আব্দুল বারিক, বেদারুন নেছা, মোজাম্মেল হক, জিন্নাতুন মিনি ও মাজেদা বিবি গুরুত্বর আহত হলে তাদেরকে আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়।

বাঁকি আহত তিনজনকে প্রাথমিক চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়। আহতদের মধ্যে আব্দুস ছামাদ, আব্দুস সবুর এবং বাধনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় গতকাল রাতেই রামেকে নেওয়ার পথে কৃষক আব্দুর সবুর মারা যান। বর্তমানে আব্দুস ছামাদ এবং বাধনকে রামেকে ভর্তি রয়েছে।

এ ব্যাপারে আত্রাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়েছে। নিহতের পক্ষে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হলে রাতেই মোজাম্মেল হক, জিন্নাতুন মিনি ও মাজেদা বিবিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

Leave a Reply