দোকান খালি, গুদামে মিলল ৮০০ লিটার সায়াবিন

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী: দোকান খালি। ক্রেতারা গেলেই বিক্রেতা জানাচ্ছিলেন-বোতলজাত সয়াবিন তেল নেই। দোকানের পাশের ভবনেই গুদাম। সেখানেই থরে থরে তেল লুকিয়ে রেখেছিলেন।

প্রথমে ক্রেতা সেজে রাজশাহী নগরীর হাদির মোড় এলাকার মুদি দোকানী মো. জুয়েলকে পাকড়াও করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

পরে তার সাহাবুদ্দিন স্টোরের ‍গুদামে অভিযান চলে। রোববার (৬ মার্চ) দুপুরের এই অভিযানে দোকানীর গুদাম থেকে ৮০০ লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় ওই দোকানীর ৫০ হাজার টাকা জরিমানা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বাড়তি দামে সয়াবিন বেচে জরিমানা গুনলেন তিন বিক্রেতা

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হাসান-আল-মারুফ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, স্থানীয়দের তথ্যের ভিত্তিতে পরে সাহাবুদ্দিন স্টোরের গুদামে অভিযান চালানো হয়।

সেখানে ৮০০ লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল পাওয়া গেছে। ওই দোকানী কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির অপচেষ্টা চালিয়েছেন। এনিয়ে বিক্রেতা মো. ‍জুয়েলকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বোতল ভেঙে ‘খোলা হিসেবে’ তেল বিক্রি, দোকানী ধরা

তাৎক্ষনিতভাবে জরিমানার অর্থ আদায় করে মামলাটি নিস্পত্তি করা হয়েছে। আগামী দুই দিনের মধ্যে মজুদ তেল খোলা বাজারে বিক্রির করবেন বলে ওই দোকানী মুচলেকাও দিয়েছেন।

হাসান-আল-মারুফ আরও বলেন, রাজশাহী নগরীতে ভোজ্য তেলের ঘাটতি নেই। পর্যাপ্ত সরবরাহ রয়েছে। তা সত্ত্বেও কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অবৈধ মজুদ গড়ে কৃত্রিম সংকট তৈরীর চেষ্টা করছেন। 

আরও পড়ুন: তেলের বোতলের এমআরপি মুছে জরিমানা গুনলেন দোকানী

তথ্য পেলেই দ্রুত অভিযান চালিয়ে আইনত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এসময় তথ্য দিয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরকে সহায়তার আহবান জানান তিনি। 

Leave a Reply