দেশে গণতন্ত্র চর্চায় আ’লীগ এগিয়ে

স্টাফ রিপোর্টার: এদেশে গণতন্ত্র চর্চায় আওয়ামী লীগ অন্য যেকোনো দলের চেয়ে এগিয়ে বলে মন্তব্য করেছেন  সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে ঢাকা থেকে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে এই মন্তব্য করেন তিনি।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ইতিহাস মূলত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার ইতিহাস। বাংলাদেশের সেই ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধ ও গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে, আর আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হলে তৃনমূলের সংগঠনকে বাঁচাতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একই সূত্রে গাঁথা। এই সংগঠন শত নির্যাতন সহ্য করে অকুতোভয়ে এগিয়ে যাওয়ার সংগঠন। এই সংগঠনের শক্তির উৎস জনগণ, যার কেন্দ্রে আছেন সাহসী নেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ, সারাবিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। সারাবিশ্বে আজ বাংলাদেশের উন্নয়নের গল্প।

শেখ হাসিনার সততা, পরিশ্রম, সাহসী ও দূরদর্শী নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ সারাবিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। একসময় অনেকে বাংলাদেশকে খরা, বন্যা ও দূর্ভিক্ষের দেশ, ভিক্ষুকের দেশ বলত।

আজ বাংলাদেশ ভিক্ষুকের দেশ নয়- ভিক্ষা দেয়। শ্রীলংকা, সুদানের দুঃসময়ে সাহায্য নিয়ে এগিয়ে যায়।

এখন দেশের মাথাপিছু আয় ২৫৯১ ডলার, প্রবৃদ্ধি ৬.৯০ শতাংশের বেশি। বাংলাদেশ এখন এশিয়ার শীর্ষ প্রবৃদ্ধির দেশগুলোর মধ্যে একটি।

মন্ত্রী বলেন, বিশ্বব্যাংক পদ্মাসেতু প্রকল্প থেকে সরে গিয়েছিল, আজ বিশ্বব্যাংক বলে তাদের ভুল হয়েছে। বাংলাদেশের প্রশংসা করে।

কোথায় ছিল বাংলাদেশ? কোথায় আজ বাংলাদেশ? দেশে শত ভাগ বিদ্যুতায়ন হয়েছে। পদ্মাসেতুসহ অনেকগুলো মেগাপ্রকল্প হচ্ছে। এবছরই পদ্মাসেতু উদ্বোধন হবে। সারাদেশে আজ উন্নয়ন আর উন্নয়ন।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় এলে গণতন্ত্র ধ্বংস হয়ে যাবে, দেশের উন্নয়ন ধ্বংস হয়ে যাবে, মুক্তিযুদ্ধ ধ্বংস হয়ে যাবে, বাংলাদেশ ধ্বংস হয়ে যাবে।

এসময় মন্ত্রী আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের ক্ষমতার দাপট না দেখানোর পরামর্শ দিয়ে বলেন, কেউ চিরকাল ক্ষমতায় থাকবে না। ক্ষমতার দাপট মানুষ পছন্দ করে না।

ক্ষমতার দাপট দেখালে শেখ হাসিনার উন্নয়ন ম্লান হয়ে যাবে। শেখ হাসিনা যে সুনাম কুঁড়িয়েছেন, আপনারা তার দুর্নাম করবেন না।

নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মালেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহ্মুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য বেগম আকতার জাহান ও অধ্যক্ষ মেরিনা জাহান কবিতা এম পি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে এস এম কামাল হোসেন প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদদের সাধারণ সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন।

এছাড়া অনুষ্ঠানে নওগাঁ জেলার সংসদ সদস্যবৃন্দসহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও এর বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের স্থানীয় পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মো. আব্দুর রহমান।

Leave a Reply