কসমেটিকস পছন্দ না হওয়ায় আত্মহত্যা নববধূর 

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী: রাজশাহীর দুর্গাপুরে বাবার সঙ্গে পরকীয়া সন্দেহে জুথি খাতুন (২৩) নামের এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা করেছেন তার স্বামী।

বুধবার (৬ এপ্রিল ) দিবাগত রাত আটটার দিকে উপজেলার কিশোরপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত জুথি ওই গ্রামের আবু হানিফের মেয়ে।

বছর দুয়েক আগে একই উপজেলার বর্ধনপুর এলাকার আবুল কালামের ছেলে গোলাম মোস্তফার (২৫) সাথে তার বিয়ে হয়। এই দম্পতির সাত মাস বয়সী এক কন্যা সন্তান রয়েছে।

স্ত্রীকে হত্যার আগে নিজ বাড়িতে বাবাকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন গোলাম মোস্তফা। মারাত্মক জখম নিয়ে ঢাকায় জাতীয় বক্ষব্যাধি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাবা।

নিয়ে বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) দুপুরে দূর্গাপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন নিহত জুথি খাতুনের বাবা আবু হানিফ। এ ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত গোলাম মোস্তফা। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও দুর্গাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নয়ন হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরেই বাবার সাথে স্ত্রীর পরকীয়া চলছিল। সম্প্রতি স্বামীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় পুত্রবধূকে দেখে ফেলেন গোলাম মোস্তাফার মা।

বুধবার দুপুরের দিকে স্বামী ও পুত্রবধূর পরকীয়ার বিষয়টি ছেলেকে জানিয়ে দেন তিনি। এনিয়ে পরিবারে শুরু হয় চরম অশান্তি। তখনই শিশুকন্যাকে সঙ্গে নিয়ে শ্বশুর বাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়িতে গিয়ে ওঠেন যুথি।

সন্ধ্যার পর নিজ বাড়িতে বাবাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে জখম করেন গোলাম মোস্তফা। সেখান থেকে সোজা চলে যান শ্বশুরবাড়ি। শ্বশুরবাড়ি গিয়ে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যান।

টের পেয়ে রাতেই ওই গৃহবধূর নিথর দেহ উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র নেন স্বজনরা। এসময় দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সেখান থেকেই মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ময়নাতদন্তের জন্য বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে মরদেহ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ নিয়ে পুলিশ আইনত ব্যবস্থা নিচ্ছে বলে জানান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা।

Leave a Reply