এটা সেই বাংলাদেশ নয়: ইকবাল হাসান মাহমুদ

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেছেন, যে বাংলাদেশের জন্য লাখো জনতা জীবন দিয়েছে, মা-বোনদের সভ্রম গেছে। এটি সেই বাংলাদেশ না। শনিবার (৩ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে এই মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, দেশ থেকে গণতন্ত্র হারিয়ে গেছে। যার চিত্র গত তিন দিনে আমরা রাজশাহীতে দেখছি। পাকিস্তান সেনাবাহিনী আমাদের আক্রমণ করে দেশ ছাড়া করেছিল। আমরা যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিলাম। আজ এই দেশের সরকার, এই দেশের পুলিশ যারা দিনের ভোট রাতে চুরি করে, তারা সব বন্ধ করে দিয়েছে। তিন দিন আগে থেকে রাজশাহীতে আমাদের শিবির বানিয়ে থাকতে হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ৫০ বছর পরে আজকে আমাদের আবারো গণ আন্দোলন করতে হচ্ছে প্রাণের অধিকার, বাঁচার অধিকার ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে। আমাদের আন্দোলন করতে হচ্ছে জনগণের ভাতের অধিকারের জন্য। পাকিস্তানের লুটারেরা যেমন লুট করে নিয়ে গিয়েছিল, তেমনি বর্তমান সরকারের লুটপাটের বিরুদ্ধে আমাদের আন্দোলন করতে হচ্ছে। এই আন্দোলনে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

সবাই যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত উল্লেখ করে এই বীর মুদ্ধিযোদ্ধা বলেন, এখানে ৫ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা বসে আছেন। আমরা যুদ্ধে গিয়েছিলেন জীবনকে বন্ধক রেখে। যুদ্ধ থেকে ফিরতে পেরেছি। ঘোষণা দিচ্ছি, মানুষের অধিকার ফিরিয়ে আনতে এই বয়সে আবারো যুদ্ধে যাবো। এখানে যারা বসে আসেন তারা আরেকটা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত।

পুলিশকে উদ্দেশ্য করে বিএনপির এই সিনিয়র নেতা বলেন, আপনারা যদি আওয়াম লীগ করেন-সেটা আপনার নাগরিক অধিকার। কিন্তু মনে রাখবেন, লাখো জনতার ট্যাক্সের পয়সায় আপনাদের সংসার চলে। দয়া করে উর্দি খুলে রাস্তায় আসেন, আমাদের সঙ্গে লড়াই করেন। আমার বন্ধুক, আমার গুলি, আমার লাঠি, সেটা দিয়ে আমাকে পেটাবেন, আর সেই যুদ্ধে আমাদের জয়লাভ করতে বরতে বলবেন- সেটা হতে পারেনা। আমরা জীবনের ভয় পায়না। আমারা ততদিন পর্যন্ত লড়ব, যতদিন এই দেশের মানুষের অধিকার ফিরে না আসে।

সমাবেত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে টুকু বলেন,  আমরা একটা বিরাট বিএনপি পরিবার একসাথে হয়েছি। একটাই লক্ষ্য-গণতন্ত্র ফিরে আসলে বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন। গণতন্ত্র ফিয়ে আসলে আমাদের নেতা তারেক রহমান ফিরে আসবেন। আমরা বিজয়ের মাসে তীব্র আন্দোলন গেড় তুলব। এই আন্দোলন দেশের মানুষকে এক নতুন বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখাবে।

Leave a Reply