স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) ক্যাম্পাসে নিজ শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করা মো. সাইফুর রহমান রাফি (২৮) নামে সেই যুবক মারা গেছেন।

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) রামেকের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রাত সাড়ে ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

রাফি নগরীর বোয়ালিয়া থানার হেতেমখাঁ এলাকার মো. বাবুলের ছেলে। এর আগে বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে রামেক ক্যাম্পাসের নুরুন্নবী হোস্টেলের সামনে তিনি নিজের শরীরে আগুন দেন।

পরে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার মৃত্যু হয়।

রামেকের বার্ন ইউনিটের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা. আফরোজা নাজনীন বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, রাফিকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে জরুরি বিভাগে আনলে সেখান থেকে তাকে ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে (বার্ন ইউনিটে) ভর্তি করা হয়।

আগুনে রাফির শরীরের ৯৯ শতাংশের বেশি পুড়ে গিয়েছিল। হাসপাতালে নেওয়ার ঘণ্টা দুয়েক পরেই তার মৃত্যু হয়।

নগরীর রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এস এম সিদ্দিকুর রহমান বলেন, রাতে রাফির নিজের শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন দেওয়া এবং তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা পর্যন্ত জানি। পরে ছেলেটা মারা গেছে কী না তা জানি না।

Leave a Reply