22.4 C
Rajshahi
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৯, ২০২০
প্রথম পাতা লেখক দ্বারা পোস্ট Fardoush Siddquy

Fardoush Siddquy

Fardoush Siddquy
5856 পোস্ট 0 মন্তব্য
খাদ্যমন্ত্রীকে নিয়ামতপুর প্রেসক্লাবের নতুন কমিটির শুভেচ্ছা

খাদ্যমন্ত্রীকে নিয়ামতপুর প্রেসক্লাবের নতুন কমিটির শুভেচ্ছা

নিয়ামতপুর: খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপিকে নিয়ামতপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সদ্য গঠিত নতুন কমিটি সারদীয় শুভেচ্ছা প্রদান করেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহজাহান শাজু ও সম্পাদক সিরাজুর ইসলামের নেতৃত্বে...
রাজশাহীতে বিশ্ব মিঠাপানির ডলফিন দিবস পালন

রাজশাহীতে বিশ্ব মিঠাপানির ডলফিন দিবস পালন

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে বিশ্ব মিঠাপানির ডলফিন দিবস পালিত হয়েছে। শনিবার বন্যপ্রানী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগ এবং সেভ দি ন্যাচার এন্ড লাইফ দিবসটি পালন করে। এনিয়ে সেভ দি ন্যাচার...

তথ্যমন্ত্রীর সুস্থতা কামনায় টিআরসি’র দোয়

স্টাফ রিপোর্টার, তানোর: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত তথ্যমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদের সুস্থতা কামনায় রাজশাহীর তানোর রিপোর্টার্স ক্লাব (টিআরসি) এর উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অনলাইনে মৌখিক পরীক্ষা নেবে রাবি

রাবিতে শিক্ষক নিয়োগে যোগ্যতা কমিয়ে ফের বিজ্ঞপ্তি

স্টাফ রিপোর্টার: নিজ মেয়ে ও জামাতাকে শিক্ষক বানাতে নিয়োগ নীতিমালা পরিবর্তন করে নজির স্থাপন করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ভিসি) এম আব্দুস সোবহান। আবারও নীতিমালা শিথিল করে শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের...
আবহাওয়া স্বাভাবিক হতে পারে শনিবার

আবহাওয়া স্বাভাবিক হতে পারে শনিবার

জাতীয় ডেস্ক: নিম্নচাপের প্রভাবে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে বৃষ্টি হচ্ছে।  আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত কখনো জোরে, কখনো ঝিরঝিরে বৃষ্টি চলছে। আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরের নিম্নচাপটি ইতিমধ্যে...
ঘুমের ওষুধ খাইয়ে প্রেমিকাকে ধর্ষণ, ছাত্রলীগ সভাপতির নামে মামলা

ঘুমের ওষুধ খাইয়ে প্রেমিকাকে ধর্ষণ, ছাত্রলীগ সভাপতির নামে মামলা

দেশজুড়ে ডেস্ক: নরসিংদীর রায়পুরায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক তরুণীকে (১৮) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। আজ শুক্রবার এ ঘটনায় ভুক্তভোগী তরুণী বাদী হয়ে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আসাদুল হক চৌধুরী শাকিলসহ (২৭) তার এক সহযোগীর...
জাতীয় ডেস্ক: ইতালিতে প্রতিবছর সিজন্যাল চাকরি করার জন্য কিছু শ্রমিক আমদানি করা হয়। তারা সাধারণত কৃষি ও পর্যটনক্ষেত্রে নিয়োগ পেয়ে থাকেন। ছয় থেকে নয় মাসের মৌসুমী কাজের জন্য তাদের নিয়োগ দেওয়া হয়। নিয়োগের মেয়াদ শেষ হলে ফিরে যেতে হয় নিজ দেশে। অনেক বছর থেকে এভাবেই চলে আসছে। প্রথমদিকে এই তালিকায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের কোটা থাকলেও ২০১২ সাল থেকে সে কোটা বাতিল করা হয়। দীর্ঘ আট বছর বাংলাদেশকে রাখা হয় নিষিদ্ধের তালিকায়। ২০২১ সালের সিজন্যাল শ্রমিক আমদানির জন্য ইতালিয় সরকার গত ১২ অক্টোবর গেজেট প্রকাশ করে এবং এ বছর বাংলাদেশকে নিষিদ্ধের তালিকা থেকে তুলে নেয়। অর্থাৎ ২০২১ সালের সিজন্যাল চাকরির জন্য বাংলাদেশ থেকেও শ্রমিক আসতে পারবে। গত ৮ বছর থেকে বাংলাদেশি সিজন্যাল শ্রমিক ইতালিতে নিষিদ্ধ থাকলেও ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা থেকে শ্রমিক আমদানি অব্যাহত ছিল। ২০২১ সালে এশিয়ানর আটটি দেশসহ মোট ৩০টি দেশ থেকে ৩০ হাজার ৮৫০ জন শ্রমিক আমদানি করা হবে। এর মধ্যে ১৮ হাজার শ্রমিক ইতালিতে সর্বোচ্চ নয় মাস থাকতে ও কাজ করতে পারবে। ১২ হাজার ৮৫০ জন শ্রমিক যদি চাকরির জন্য স্থায়ীভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত হবে যারা নিয়মিত থাকতে ও কাজ করতে পারবে। এই শ্রমিদের অবশ্যই কোনো না কোনো কাজে দক্ষ হতে হবে। এর মধ্যে আলাদা করে ৬ হাজার জনের কোটা বেঁধে দেওয়া হয়েছে যারা শুধুমাত্র মালামাল বহনকারী গাড়ির চালক, আবাসিক হোটেলের কর্মচারী ও পর্যটন সংশ্লিষ্ট চাকরির জন্য নিয়োগপ্রাপ্ত হবেন। দুই ভাগে বিভক্ত করে অনলাইনে আবেদন গ্রহণ শুরু হয়েছে ২২ অক্টোবর থেকে, চলবে ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত। কারা আবেদন করতে পারবেন? কোনো শ্রমিক সরাসরি আবেদন করতে পারবে না। শ্রমিকের পক্ষে নিয়োগদাতা মালিক অনলাইনে নির্দিষ্ট ফর্ম পুরণ করে আবেদন করবেন। এ ক্ষেত্রে আবেদনকারীর প্রতিষ্ঠানে শ্রমিক ঘাটতি দেখাতে হবে এবং তার বিগত দিনের ট্যাক্স প্রদান নিয়মিত থাকতে হবে। নিয়োগপ্রাপ্ত হতে কী যোগ্যতা লাগবে? বয়স কমপক্ষে ১৮ বছর হতে হবে। উল্লেখিত ৩০ দেশের নাগরিক হতে হবে এবং বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে। যারা দক্ষ শ্রমিক হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হবেন তাদের কর্মদক্ষতার প্রমাণাদি থাকতে হবে। কত খরচ হবে? আবেদন করতে শ্রমিকের খরচ হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আবেদনকারী বা নিয়োগদাতার খরচ হবে ১৬ ইউরো। অর্থাৎ আবেদনের সঙ্গে ১৬ ইউরো মূল্যের একটি ডাকটিকেট সংযোগ করতে হবে। কত টাকা আয় করা যাবে? যারা দক্ষ শ্রমিক হিসেবে আসবেন তারা নিয়োগের স্তর বুঝে পারিশ্রমিক পাবেন, যা মাসিক ১,৫০০ থেকে ২,৫০০ ইউরো পর্যন্ত হতে পারে। যারা অদক্ষ মৌসুমী শ্রমিক হিসেবে আসবেন তারা মাসে সর্বোচ্চ এক থেকে দেড় লাখ টাকা আয় করতে পারবে। যদি নিয়োগদাতার সঙ্গে থাকা-খাওয়ার চুক্তি থাকে তবে আয়ের বড় অংশ সঞ্চয় করা সম্ভব হবে, অন্যথায় এতেই বড় একটা অংশ খরচ হয়ে যাবে। কতদিন ইতালিতে থাকা ও কাজ করা যাবে? যারা দক্ষ শ্রমিক হিসেবে আসবেন তাদের চাকরির মেয়াদ যতোদিন থাকবে ততদিন তাদের ইতালিয় ডকুমেন্ট নবায়ন করা হবে। যারা অদক্ষ বা সিজন্যাল ভিসায় আসবেন তারা সর্বোচ্চ নয় মাসের জন্য নিয়োগপ্রাপ্ত হতে পারবেন। অর্থাৎ, নয় মাস পর তাদের অবশ্যই নিজ দেশে ফিরে যেতে হবে। না গেলে তাদেরকে অবৈধ অভিবাসী হিসেবে গণ্য করা হবে। আমাদের কমিউনিটিতে কী হচ্ছে? দীর্ঘ আট বছর পর বাংলাদেশি শ্রমিকদের ইতালিতে আসার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে এই সংবাদ ছড়িয়ে এক শ্রেণির দানব মানুষ সক্রিয় হয়ে উঠেছে। তারা দেশের সাধারণ মানুষকে ভুল দিয়ে বিভ্রান্ত করছে। মানুষের কাছ থেকে লাখ-লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ফাঁদ পেতেছে। তারা মানুষকে বোঝাচ্ছে আবেদন করলেই ইতালিতে আসা যাবে। এসব বলে জনপ্রতি ৮ থেকে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত হাঁকাচ্ছে। কিন্তু, বাস্তবতা হলো- আবেদন করলেই ইতালিতে আসা যাবে না। মনে রাখতে হবে, মোট শ্রমিক আমদানি করা হবে ৩০ হাজার ৮৫০ জন। এই সংখ্যা ৩০টি দেশের মধ্যে ভাগ হবে। এর মধ্যে ইউরোপীয় ছোট অর্থনীতির দেশগুলোর শ্রমিকরা ও বিগত বছরগুলোতে যেসব শ্রমিক ইতালিতে এসেছেন এবং নিয়োগের মেয়াদ শেষ হলে নিজ দেশে ফিরে গেছেন তারা অগ্রাধিকার পাবেন। আমরা ইতালি থেকে জানতে পারছি দালাল শ্রেণির মানুষদের কথায় বিভ্রান্ত হয়ে দেশের অনেক মানুষ ভিটে-মাটি বিক্রি করে তাদের হাতে টাকা তুলে দিচ্ছেন, যা অত্যন্ত আতঙ্কের বিষয়। এই টাকা তাদের পক্ষে ফেরত পাওয়া কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। আবার অনেকে অগ্রিম ২/৩ লাখ টাকা করে নিচ্ছে এই শর্তে- যদি আবেদন গ্রহণযোগ্য হয় তবে বাকি টাকা দিয়ে ভিসার অনুমোদনপত্র সংগ্রহ করতে হবে। আবেদন গ্রহণযোগ্য না হলে ৫০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা খরচ বাবদ কেটে রেখে বাকি টাকা ফেরত দেওয়া হবে। অর্থাৎ, তারা একেকজন ১০ জন, ২০ জন বা তারও বেশি মানুষের কাছ থেকে ২/৩ লাখ টাকা করে নিচ্ছে। এই বিপুল টাকা এক-দেড় বছর নিজের ব্যবসায় খাঁটিয়ে হয়তো কিছু কিছু করে ফেরত দেবে। আতঙ্কের বিষয়! যারা দালাল শ্রেণির মানুষদের কথায় বিভ্রান্ত হয়ে ভিটে-মাটি বিক্রি করছেন, বন্দক রাখছেন তাদের বড় অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। যারা বিপুল অংকের টাকা খরচ করে সিজন্যাল ভিসায় আসতে পারবেন তারা নয় মাসে খরচের টাকা সঞ্চয় করতে পারবেন না। অবৈধ হয়ে পালিয়ে থাকতে হবে। মানবেতর জীবন যাপন করতে হবে। এর ফলে আবারও নতুন করে বাংলাদেশি শ্রমিকদের ওপর নিষিদ্ধের খড়গ নেমে আসার আশঙ্কা তৈরি হবে। ২০১২ সাল থেকে দীর্ঘ আট বছর ইতালিতে বাংলাদেশি শ্রমিক নিষিদ্ধ থাকার অন্যতম কারণ হলো ২০১২ সালের আগে যারা এসেছেন তাদের কেউ ভিসার মেয়াদ শেষে দেশে ফিরে যাননি। টাকার বিনিময়ে আবেদন করা অধিকাংশ নিয়োগদাতা ইতালিতে আসার পর শ্রমিকদের চাকরি দেয়নি। বিমানবন্দর পার করেই তারা দায়িত্ব শেষ করেছে। এসব নিয়ে কমিউনিটিতে বহু মারামারি, ঝগড়া-বিবাদ হয়েছে। থানা-পুলিশ পর্যন্ত গড়িয়েছে। দেশেও শ্রমিকদের পরিবারগুলো নানাভাবে অত্যাচারের শিকার হয়েছে।

ইতালিতে শ্রমিক আমদানিতে প্রতারণার হাতছানি

জাতীয় ডেস্ক: ইতালিতে প্রতিবছর সিজন্যাল চাকরি করার জন্য কিছু শ্রমিক আমদানি করা হয়। তারা সাধারণত কৃষি ও পর্যটনক্ষেত্রে নিয়োগ পেয়ে থাকেন। ছয় থেকে নয় মাসের মৌসুমী কাজের জন্য তাদের নিয়োগ দেওয়া হয়।...
গনতন্ত্রের অভাবেই ধর্ষণ,আইনেও থামবেনা

গনতন্ত্রের অভাবেই ধর্ষণ, আইনেও থামবেনা

জাতীয় ডেস্ক: গনতন্ত্র নেই বলেই দেশে ধর্ষণের মত ঘটনা ঘটছে বলে মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। আইন করে ধর্ষণ থামানো যাবেনা বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।
বাজারে সিন্ডিকেট মোকাবিলায় ব্যর্থ নয় সরকার 

বাজারে সিন্ডিকেট মোকাবিলায় ব্যর্থ নয় সরকার 

জাতীয় ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাজারে সিন্ডিকেট আছে। কিন্তু সিন্ডিকেট মোকাবিলায় সরকার ব্যর্থ নয়।  শুক্রবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার...

নিয়ামতপুর প্রেসক্লাবের উদ্যোগে তাল গাছের চারা রোপণ

নওগাঁ: বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ ও শেখ রাসেল স্মরণে নিয়ামতপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের ব্যানারে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচী পালিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর ২০২০) সকালে উপজেলার বাদ নেহেন্দা হতে নেহেন্দা পর্যন্ত ১ কিলোমিটার সড়কের উভয় পাশে...

সর্বাধিক পঠিত

তাজা খবর