নন্দীগ্রামে ছেলের ছুরিকাঘাতে প্রাণ গেল বিএনপি নেতার

8
নিহত বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন

বগুড়া: বগুড়ার নন্দীগ্রামে ছেলের ছুরিকাঘাতে আনোয়ার হোসেন (৫০) নামে এক বিএনপি নেতা নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় বাবার ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন ঘাতক ছেলে রনি আহম্মেদ (২৮)। নিহত আনোয়ার হোসেন পৌর বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পৌর এলাকার পূর্বপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। টাকা পয়সার হিসাব-নিকাশ নিয়ে বাবা-ছেলের বিরোধকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, কয়েক বছর আগে আনোয়ার হোসেন তার ছেলে রনিকে হিউম্যান হলার (চার চাকার যানবাহন লেগুনা) কিনে দেন। রনি নিজেই হিউম্যান হলার চালাতেন। বেশ কয়েক মাস যাবৎ রনি গাড়ির আয় ব্যয়ের কোনো টাকা তার বাবাকে দেয়নি। এমনকি লাভ-লোকসানের বিষয়েও বাবাকে কিছু জানায়নি। এ নিয়ে বাবা ও ছেলের মধ্যে বিরোধ চলছিল গত কয়েকদিন ধরে।

বৃহস্পতিবার টাকার হিসাব নিয়ে বাড়িতে বাবা-ছেলের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে ছেলে রনি তার বাবা আনোয়ার হোসেনের পেটে ছুরিকাঘাত করে। ছুরিকাহত অবস্থায় আনোয়ার হোসেন ছুরি কেড়ে নিয়ে ছেলে রনিকে আঘাত করেন। ছেলে আবারও ওই ছুরি কেড়ে নিয়ে বাবার পেটে উপর্যুপরি আঘাত করে।

প্রতিবেশীরা জানতে পেরে বাবা ও ছেলেকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ২টার দিকে বাবা আনোয়ার হোসেন মারা যান। ছেলে রনির অবস্থাও আশঙ্কজনক বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

নন্দীগ্রাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত কবির বলেন, ছেলের ছুরিকাঘাতে বাবা খুন হয়েছেন। তবে কী কারণে খুনের ঘটনা ঘটেছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য