নাচোলের শিশু মনিরার শরীরে পশুরমত লোম!

862

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলের সাড়ে তিন বছর বয়সি শিশু তাসফিয়া জাহান মনিরার গায়ে লোম গজিয়েছে পশুরমত! ধিরে ধিরে তা ছড়িয়ে পড়ছে মুখমণ্ডলসহ শরীরজুড়ে। 

শিশুকন্যা মনিরা চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোল উপজেলার গোডাউন পাড়ার মাসুদুজ্জামান মামুনের মেয়ে। শরীরে পশুর মত লোম নিয়ে জন্মায় সে।

বাবা মামুন পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি। অর্থাভাবে শিশু কন্যার এই বিরল রোগের চিকিৎসা করাতে পারেনি তিনি। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ভারতে নেয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন চিকিৎসক। সেটিও করতে পারেননি তার দরিদ্য বাবা। বাধ্য হয়ে হোমিও চিকিৎসায় গেছেন বাবা।

শিশু মনিরার বাবা মামুন জানান, জন্ম থেকেই তার সারা শরীর লম্বা লম্বা পশমে আবৃত। এখন গোটা শরীরজুড়ে বিস্তার ঘটছে, এমনকি মুখের মধ্যেও। পিঠের ছোট্ট একটি টিউমার থেকে এটির উৎপত্তি হতে পারে বলে তাদের ধারণা।

তিনি আরো জানান, জন্মের মাত্র ছয় দিনের শিশুকন্যা মনিরাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভর্তি করা হয়েছিলো। সেখানকার চিকিৎসকদের একটি দল মেডিকেল বোর্ড এটি বিরল চর্ম রোগ বলে সনাক্ত করে।

শিশুটির বয়স অন্তত ৩/৪ বছর হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা অথবা ভারতে নেয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন চিকিৎসকেরা। সাধ্য না থাকায় সেটি সম্ভব হয়নি তার। বাধ্য হয়ে হোমিও চিকিৎসা করাচ্ছেন।

শিশুটির মা তানজিলা খাতুন জনান, গরমকালে মনিরার শরীর থেকে অনবরত আগুনের মত তাপ বের হয়। দিনে অন্তত ৩ বার গোসল করাতে হয় তাকে।

বাকি সময় ভেজা কাপড় পরিয়ে ফ্যানের নিচে রাখতে হয় তাকে। বিদ্যুৎ না থাকলে সব সময় পাখার বাতাস করতে হয়। মেয়ের চিকিৎসায় বিত্তবানদের সহায়তা চান তিনি।

আপনার মন্তব্য