বাবার বাড়িতে নৃশংসভাবে গৃহবধূকে হত্যা

28

পাবনা:  পাবনার ফরিদপুরে সাথী খাতুন (২০) নামের এক গৃহবধূকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে উপজেলার ডেমরা ইউনিয়নের পাচুয়াবাড়ি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত সাথী ওই গ্রামের আব্দুল মজিদের মেয়ে। তিনি ফরিদপুর পৌর সদরের টিয়ারপাড়া মহল্লার মিজানুর রহমানের স্ত্রী।

পরিবারের লোকজন জানায়, পারিবারিক কলহের কারণে এক মাস আগে স্বামীর ওপর অভিমান করে বাবার বাড়িতে চলে আসেন সাথী খাতুন।

 বুধবার রাতে খাবার খেয়ে ছোট বোন মীমের সঙ্গে ঘুমিয়েছিলেন তিনি। রাত ৩টার দিকে দুর্বৃত্তরা কোনোভাবে ঘরে ঢুকে সাথীকে গলা ও ঘাড়ে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। 

গোঙানির শব্দ পেয়ে মীম টের পেয়ে চিৎকার দিলে তার বাবা ও প্রতিবেশীরা ছুঁটে আসেন। মারাত্মক আঘাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

নিহত সাথী খাতুনের বাবা আব্দুল মজিদ জানান, চার বছর আগে মিজানুর রহমানের সাথে বিয়ে হয় সাথী খাতুনের। পারিবারিক কলহের কারণে মাঝেমধ্যেই সাথীকে মারধর করতেন তার স্বামী। 

এক মাস আগে বাবার বাড়িতে চলে যান ওই গৃহবধূ। এ নিয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলাও করেন তিনি। এ কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে সাথীকে তার স্বামী হত্যা করেছে বলে দাবি বাবা মজিদের।

এদিকে, খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান সহকারী পুলিশ সুপার (চাটমোহর সার্কেল) সজিব শাহরীন।

তিনি জানান, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। হত্যার কারণ ও হত্যাকারী সম্পর্কে সুস্পষ্ট কিছু জানা যায়নি। তদন্তের মাধ্যমে সবকিছু খুঁজে বের করা হবে।

আপনার মন্তব্য