ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে ভিপি নুরের ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

20

ক্যাম্পাস ডেস্ক: রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার এবং সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়ে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর।

সোমবার দুপুরে ঢাবিতে দুর্নীতি বিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে প্রতিবাদ মিছিল থেকে তিনি এ আল্টিমেটাম দেন।

এ ঘটনায় সরকারকে দায়ী করে নুর বলেন, সরকার এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এর দায় এড়াতে পারে না। তারা নাগরিকদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘শুধু আইওয়াশমূলক কথাবার্তা না বলে দ্রুত ধর্ষণকারীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় এনে বিচার নিশ্চিত করতে হবে। অন্যথায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা কোনোভাবেই এই ঘটনা ছেড়ে দেবে না।’

ভিপি নূর বলেন, ‘এখন আমাদের একটা ট্রেন্ড হয়ে গেছে, যখন কোনো ঘটনা ঘটে আপনার যদি ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হয় তাহলে আপনাকে রাস্তায় নামতে হবে, শাহবাগ অবরোধ করতে হবে কিংবা বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। এছাড়া কোনো ঘটনার বিচার হয় না। এর আগে এরকম অনেক ঘটনা ঘটেছে। বিচারহীনতার কারণে বার বার এ ধরনের ঘটনা ঘটছে।’

তিনি বলেন, আমরা আশা করি সরকার এ ঘটনায় একই নিয়ম অনুসরণ করবে না এবং অপরাধীদের খুঁজে বের করে কার্যকর শাস্তি নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। যাতে ভবিষ্যতে কেউ এই ধরনের ঘটনা ঘটাতে সাহস না করে।

ডাকসুর সমাজ সেবা সম্পাদক আক্তার হোসেন, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. রাশেদ খান, ফারুক হোসেন, শামসুন্নাহার হল সংসদের ভিপি এসকে তাসনিম আফরোজ ইমি প্রমুখ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

পরে দুপুর দেড়টার দিকে সেখান থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে এসে রাজু ভাষ্কর্যে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচি শেষ হয়। কর্মসূচি থেকে অপরাধীদের খুঁজে বের করে চিহ্নিত করার জন্য প্রশাসনকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটামও দেওয়া হয়।

রোববার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে শেওড়া যাওয়ার উদ্দেশে ঢাবির বাসে ওঠেন ওই শিক্ষার্থী। সন্ধ্যা ৭টার দিকে কুর্মিটোলায় বাস থেকে নামার পর অজ্ঞাত ব্যক্তিরা তাকে পার্শ্ববর্তী একটি স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে অজ্ঞান করে ধর্ষণ করা হয়। রাত ১০টার দিকে জ্ঞান ফিরলে তিনি নিজেকে নির্জন স্থানে আবিষ্কার করেন। সহপাঠীদের খবর দিলে তারা সেখানে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে তাকে রোববার রাত ১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে নেওয়া হয়।

ধর্ষণের ঘটনায় ভিকটিমের বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেছেন বলে জানিয়েছে ওসি শাহান হক।

আপনার মন্তব্য