বিয়ে বাড়ির খাবার খেয়ে একজনের মৃত্যু, অর্ধশতাধিক অসুস্থ্য

13

দেশজুড়ে ডেস্ক: বিয়ে বাড়িতে রান্নাকরা খেয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। অসুস্থ্য হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন আরো অর্ধশতাধিক মানুষ।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লা পাড়া ইউনিয়নে  এই ঘটনা ঘটে।

মৃত্যুবরণকারী জলি রাণী দেব (৩৫) সুনামগঞ্জ শহরের ওয়েজখালী এলাকার সঞ্জু দেবের স্ত্রী।

 শুক্রবার বিকেলে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এর আগে বুধবার রাতে শাধদপুর গ্রামের মৃত প্রাণেশ তালুকদারের মেয়ে চন্দনা তালুকদারের ও দিরাই উপজেলার তাড়ল ইউনিয়নের ডাইয়ার গাঁও গ্রামের মিহির তালুকদারের বিয়ের খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ৫৬জন ভর্তি হন।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়া সবাই কনে পক্ষের লোক। তাৎক্ষণিকভাবে তাদের নাম পাওয়া যায়নি।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীরা জানান, বুধবার রাতে বিয়ের খাবার খাওয়ার পর বৃহস্পতিবার সকালে অনেকেরই পেটে ব্যথা শুরু হয়।

অনেকেই আবার পাতলা পায়খানায় সহ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হন। এ ভাবে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে একে একে হাসপাতালে ৫৬ জন রোগী সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

কনের মা চন্দা রানী তালুকদার ও বড় ভাই শান্ত তালুকদারও খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

কনের খালু জিসু মজুমদার বলেন, কি কারণে এমন হলো কিছুই বুঝতে পারছি না। আমার নিজের পেটে ব্যথা ছিল। পরে ওষুধ খেয়েছি। এখনো পেটে ব্যথা রয়েছে।

শুক্রবার জ‌লি রানী দে‌বের অবস্থার অবনতি হলে তা‌কে সি‌লেট ওসমানী মে‌ডি‌কেল ক‌লেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। প‌রে সেখা‌নে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তি‌নি মারা যান।

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. রফিকুল ইসলাম বলেন, ফুড পয়জনিং থেকে এই সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।

কারও অবস্থার অবনতি হ‌লে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে, কিছু সময় আগেও দুজনকে সিলেট পাঠানো হয়েছে।

সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন আশুতোষ দাস বলেন, গরম এবং ফুড পয়জনিং থেকে এমন সমস্যা হয়েছে, সবাইকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম হাসপাতালের বরাত দিয়ে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আপনার মন্তব্য