নারীর শরীর আর রক্ত দেখে আনন্দ যার!

473

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নারীদের শরীর আর রক্ত দেখে পৈশাচিক আনন্দ পান বিকৃতকাম সমীর।

 আর এ জন্যই ভীড়ের মধ্যে নারীদে লেগিংসে ব্লেড চালান তিনি।

ভারতের বাড়ি হুগলির চুঁচুড়ার এই যুবক শুক্রবার শ্রীরামপুর স্টেশনে দুই তরুণীর লেগিং এ ব্লেড চালান।

পালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে তাকে ধাওয়া করে ধরে ফেলে পুলিশ। 

পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে সমীর জানিয়েছেন, এর আগেও এ ধরনের বিকৃত কামনার বশবর্তী হয়ে ভিড়ের মাঝে নারীদের অসতর্ক মূহুর্তে ব্লেড দিয়ে আক্রমণ চালিয়েছেন। 

বিশেষ করে নারীদের লেগিংসের ওপর ব্লেড চালান সমীর। ব্লেডের আঘাতে অনেক সময়ই লেগিংস ছিঁড়ে গিয়ে রক্তপাত হয়।

 নারীরা লজ্জায় সে কথা প্রকাশ্যে আনতে পারে না। আর নারীদের শরীরের রক্ত দেখে উল্লাসে ফেটে পড়েন সমীর। 

ওই ব্যক্তির কীর্তি দেখে রীতি মতো বিস্মিত রেল পুলিশের কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ওই যুবকের এ ধরনের আচরণের মধ্যে অবসেশনের একটা উপাদান আছে। 

এটা এক ধরনের বাতিক হতে পারে। এই ধরনের বাতিকগ্রস্তরা যে কোনো কাজ বার বার করতে চায়। 

অনেক সময় এ ধরনের কাজ করতে না চাইলেও, ইচ্ছার বিরুদ্ধে এই আচরণ করে বসে তারা। 

ওই যুবক যে নেহাতই মজা বা আনন্দ করার জন্যই নারীদের পোশাকে ব্লেড চালিয়ে রক্তাক্ত করছে, তা নাও হতে পারে। 

যুবকের দীর্ঘ সাইকো-অ্যানালিসিসের পরই এই ধরনের আচরণের প্রকৃত কারণ জানা যাবে। 

মোহিত রণদীপ বলেন, এটা আসলে এক ধরনের মানসিক অসুস্থতা।

আপনার মন্তব্য