স্ত্রীকে হত্যার পর নিজের যৌনাঙ্গ কাটলেন স্বামী

50
স্ত্রীকে হত্যার পর নিজের যৌনাঙ্গ কাটলেন স্বামী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: শারীরিক সম্পর্কে করতে চাইলে স্ত্রী রাজি হচ্ছিল না। কিন্তু স্ত্রীর কাছে এমন প্রত্যাখাত হওয়ার ব্যাপারটি মানতে পারেনি স্বামী। তাই স্ত্রীকে হত্যা করেন।

রাগের মাথায় এমন কাজ করে অনুতপ্ত হয়ে নিজের যৌনাঙ্গ কর্তন করেন স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, স্ত্রী হত্যাকারী ওই স্বামী এখন বাবা রাঘব দাশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার বয়স ২৪ বছর। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের গোরখপুর শহরে।

পুলিশের দাখিল করা প্রতিবেদন অনুযায়ী, গোরখপুরের সিদ্ধার্থনগর এলাকার পোখার নামক গ্রামে ওই দম্পতি বসবাস করতেন। স্বামীর নাম আনোয়ারুল হাসান। তবে ওই প্রতিবেদনে স্বামীর হাতে হত্যার শিকার ওই নারীর নাম প্রকাশ করা হয়নি।

ঘটনাটি যখন ঘটে তখন হাসান ও তার স্ত্রী দুজনেই বাসায় ছিলেন। এক বছর আগে তার বিয়ে হয়। তার স্ত্রীর বয়স ২০ বছর। হাসান কাজ করে গুজরাটে। দুইদিন আগে সে বাড়িতে এসেছে। কিন্তু বাড়ি আসার পর স্ত্রীকে শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দিয়ে প্রত্যাখ্যাত হলে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

ঘটনাটি ঘটে গত শনিবার সকালে। প্রতিবেশীরা নিহত স্ত্রী এবং রক্তাক্ত অবস্থায় পরে থাকা স্বামীকে দেখতে পেয়ে পুলিশেকে খবর দেয়। পুলিশ আসার পর মরদেহটি উদ্বার করে নিয়ে যায় এবং হাসান নামের ওই হত্যাকারী স্বামীকে গ্রেফতার করে। নিহতের বাবা হাসানের নামে একটি মামলা দায়ের করেছে।

মরদেহটি উদ্ধারের পর পুলিশ সেটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। আর এদিকে নিজের যৌনাঙ্গ কর্তন করা হাসানকে স্থানীয় হাসপাতালে দ্রুত ভর্তি করায়। অভিযুক্ত স্বামী পরে সাংবাদিকদের বলেছেন, সে শ্বাসরোধ করে তার স্ত্রীকে হত্যা করেছে। কেননা স্ত্রী তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে রাজি হচ্ছিল না। এ ছাড়া ওই ঘটনার পর সে নিজের যৌনাঙ্গ কেটে ফেলে।

আপনার মন্তব্য