এখন পর্যন্ত ২০ শতাংশ কেন্দ্র দখল : রিজভী

23
সোহরাওয়ার্দীতে সোমবার ঐক্যফ্রন্টের জনসভা

জাতীয় ডেস্ক: বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ অভিযোগ করে বলেছেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতায় সকাল থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সারাদেশের প্রায় ২০ শতাংশ ভোটকেন্দ্র দখল করেছে ক্ষমতাসীনরা।

ধানের শীষের এজেন্টদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না এবং ধানের শীষের ভোটারদের ভোট দিতে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

আজ (৩০ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দ্বিতীয় দফা সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, এতো কিছু করার পরও মানুষ ভোটকেন্দ্রে গেছেন। জনগণ এসব প্রতিহত করার চেষ্টা করছেন। জনগণের শক্তি নিয়ে আমরা এগুচ্ছি, জুলুম মানবো না, এদের পতন হবেই। আন্দোলনের অংশ হিসেবে অংশ নেয়া এ নির্বাচনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত থাকবো।

তিনি সারাদেশের অনিয়মের চিত্র তুলে ধরে বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদকে ভোট দিতে দেয়া হয়নি। তার কেন্দ্রের আশপাশে বোমা ফাটছে। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহানের আসনের সব কেন্দ্র দখল করে ফেলেছে। ভোলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকরী বাহিনী গ্রেফতারের হুমকি দিয়ে অবরুদ্ধ করে রেখেছে।

তিনি আরও বলেন, শেখ হাসিনার ক্ষমতায় থাকাকালে নির্বাচন উৎসবমুখর হবে, আনন্দঘন হবে সেটা ভাবার কোনো কারণ নেই। তার প্রমাণ আজ নির্বাচনে আমাদের দুজন নেতাকে হত্যা করা হয়েছে। তারপরও ভোটাররা ভোট দেয়ার চেষ্টা করছেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন, র্যাব-বিজিবি-পুলিশ তাণ্ডব চালিয়ে সারাদেশে রাতেই নৌকায় সিল মেরেছে। একই সঙ্গে সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ শতাধিক আসনে কেন্দ্র দখল, ধানের শীষের এজেন্ট প্রবেশ করতে না দেয়া ও এজেন্টদের বের করে দেয়া হচ্ছে।

রিজভী বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা হিসাব করতে পারিনি কতটি আসনে সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটেছে। তবে তিনি যেসব আসনের কথা বলেছেন তা হিসাব করে দেখা গেছে শতাধিক আসনে রাতে ব্যালটে সিল মারা হয়েছে। সকালে ধানের শীষের এজেন্ট প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। কোথাও কোথাও রাতে ৩০ শতাংশ ভোট বাক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, শনিবার রাতের কোনো এক সময় টাঙ্গাইল-২ আসনের সিমলা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আব্দুল আজিজকে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা হত্যা করেছে।

রোববার সকালে নিজের বাসার কাছে শ্যামপুর মডেল হাইস্কুলে ভোট দিতে যাওয়ার সময় ঢাকা-৪ আসনের ধানের শীষের প্রার্থী সালাহ উদ্দিন আহমেদকে গুলি করা হয়েছে। তিনি এখন অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি।

রিজভী বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বলেছেন নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হবে। কিন্তু আমরা শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের নমুনা দেখতে পাচ্ছি।

সূত্র: জাগো নিউজ

আপনার মন্তব্য