ফেনী নদীর পানি চুক্তি নিয়ে হাইকোর্টে রীট

36
অনুমতি ছাড়া যেভাবে ফেনী নদী থেকে পানি তুলছে ভারত

জাতীয় ডেস্ক: ফেনী নদীর পানি বন্টনে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি নিয়ে হাইকোর্টে রীট হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. মাহমুদুল হাসান হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রীট দায়ের করেন। 

ওই আবেদনে ফেনী নদী থেকে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে পানি সরবরাহ ও পাম্প বসানোর ক্ষেত্রে বাংলাদেশের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ রাখার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে এ রিটের শুনানি হতে পারে।

রিট মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত চুক্তি স্থগিত রাখতে সরকারকে নির্দেশ দিতে বলা হয়েছে। 

মন্ত্রিপরিষদ সচিব, পররাষ্ট্র সচিব, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিবকে বিবাদী করা হয়েছে।

রিটকারী মো. মাহমুদুল হাসান জানান, ফেনী নদী থেকে পানি সরবরাহের ক্ষেত্রে পানির পাম্প ও সরবরাহ ব্যবস্থাপনার উপর বাংলাদেশের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ থাকা আবশ্যক। 

অন্যথায় চুক্তির ব্যতয় ঘটিয়ে ভারত যদি ইচ্ছাকৃতভাবে অথবা অনিচ্ছাকৃতভাবে অধিক পরিমাণে পানি নেয় সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ বঞ্চিত হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের সাথে যে কোন রাষ্ট্রের কোন চুক্তি যদি সংবিধানের সাথে সাংঘর্ষিক হয় সেক্ষেত্রে হাইকোর্টের পূর্ণ ক্ষমতা আছে উক্ত চুক্তির উপর হস্তক্ষেপ করার।

আরও পড়ুন

ভারতের কাছে কী কূটনৈতিকভাবে ব্যর্থ বাংলাদেশ?

সম্মতি ছাড়াই যেভাবে ফেনী নদীর পানি তুলছে ভারত

ভারতে ‘মানবিক কারণে’ ফেনী নদীর পানি দিচ্ছে বাংলাদেশ!

আপনার মন্তব্য