ভবিষ্যৎ প্রজন্মের উপযোগী আধুনিক রাষ্ট্রের লক্ষ্যে এই বাজেট

7
ভবিষ্যৎ প্রজন্মের উপযোগী আধুনিক রাষ্ট্রের লক্ষ্যে এই বাজেট

জাতীয় ডেস্ক: আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য ও খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ নাসিম এমপি বলেছেন, বাংলাদেশকে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের বসবাসের উপযোগী একটি আধুনিক রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্য পূরণের জন্য বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার এই বাজেট জাতির কাছে উপস্থাপন করেছে।

শুক্রবার বিকালে সিরাজগঞ্জের মুলিবাড়িতে নির্মাণাধীন শেখ হাসিনা ট্রমা হাসপাতালের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মোহাম্মমদ নাসিম বলেন, জনগণের প্রতি মমত্ববোধ থেকে এবং উন্নয়নের ধারা এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার এই চমকপ্রদ বাজেট উত্থাপন করেছে।

কেন্দ্রীয় ১৪ দলের পক্ষ থেকে এ বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেন, দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বার বাজেট ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। জাতীয় সংসদে উত্থাপিত ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উন্নয়ন, গণমুখী ও জনবান্ধব।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার দেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করার যে রূপকল্প দিয়েছে, এ বাজেট সেই লক্ষ্য বাস্তবায়নে সহায়ক হবে। এই বাজেট বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশ কাঙ্খিত লক্ষ্য পূরণের পথে এগিয়ে যাবে।

আরো পড়ুন: বাইরে গেলে আমাদের এখন কেউ ভিক্ষুক মনে করে না: প্রধানমন্ত্রী

তিনি বলেন, প্রবৃদ্ধির হার উচ্চাকাঙ্খি হলেও অতীতের ধারাবাহিকতায় এটা অর্জন হবে। এ বাজেটে মানবসম্পদ উন্নয়ন, পোশাক শিল্প, চামড়া শিল্প খাতে যে প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে তা প্রশংসনীয়। কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, বাজেটে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন এবং কৃষক ও শ্রমজীবী মানুষের ক্ষেত্রে যে সহযোগিতার কথা বলা হয়েছে তাতে দ্রুতই গ্রামগুলো শহরের আধুনিক রূপ পাবে।

কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, বাজেটে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন এবং কৃষক ও শ্রমজীবী মানুষের ক্ষেত্রে যে সহযোগিতার কথা বলা হয়েছে তাতে দ্রুতই গ্রামগুলো শহরের আধুনিক রূপ পাবে।

এর আগে মোহাম্মদ নাসিম মুলিবাড়িতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর, জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এম মনসুর আলীর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

পরে সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট অসুস্থ সিরাজুল ইসলাম খানের বাসায় যান এবং সেখানে কিছু সময় অতিবাহিত করেন। এ সময়ে তিনি তার শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নেন।

আপনার মন্তব্য