রিকশা-অটোরিকশা নিয়ন্ত্রনে নীতিমালা চুড়ান্ত রাসিকের

24
রিকশা-অটোরিকশা নিয়ন্ত্রনে নীতিমালা চুড়ান্ত রাসিকের

স্টাফ রিপোর্টার: ব্যাটারি চালিত রিকশা ও অটোরিকশা চলাচল নিয়ন্ত্রনে নীতিমালা চুড়ান্ত করেছে রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক)। সোমবার দুপুরে নগর ভবনের সরিৎ দত্ত গুপ্ত সভাকক্ষে সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে নিয়ে এই নীতিমালা চুড়ান্ত করে নগর সংস্থা।


নগর কর্তৃপক্ষ বলছে, ক্রমবর্ধমান ব্যাটারি চালিত রিকশা ও অটোরিকশায় যানজট বাড়ছে নগরীতে। এতে ভোগান্তি বাড়ছে নগরবাসীর। সড়কে শৃঙ্খলা আনতেই নতুন এই নীতিমালা। আগামী ১ জুলাই থেকেই এই নীতিমালা কার্যকর হচ্ছে।

সোমবারের এই বিশেষ সভায় নগরীর ইজিবাইক মালিক-শ্রমিক সমবায় সমিতি ও ইজিবাইক শ্রমিক ইউনিয়ন নেতারা উপস্থিত ছিলেন। তারাও এই নীতিমালা নিয়ে তাদের মত দেন।

সভায় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, কয়েক বছরে অটোরিকশা ও চার্জার রিকশার সংখ্যা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। যা নগর বাসির দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই পরিস্থিতিতে নগরবাসীর চলাচল নির্বিঘ্ন করতে এবং যানজট নিরসরে অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা চলাচলে শৃঙ্খলা ফেরানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

তে দিনে দুই শিফটে লাল ও সবুজ রঙের অটোরিকশা এবং চার্জার রিকশা চলাচলের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগামী ১ জুলাই থেকে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হবে। এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে নগর পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা চান মেয়র।


সভায় রাসিক প্রস্তুতকৃত এ সংক্রান্ত নীতিমালা পড়ে শোনান নগর সংস্থার প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক।

নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়েছে, সকল ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা ও চার্জার রিকশার অনলাইন নিবন্ধন আগামী ১ জুলাই থেকে শুরু হবে। ৩০ জুনের পর নগরীতে সরু চাকার কোন রিকশা চলাচল করতে পারবে না। যে সকল অটোরিকশা ও চার্জার রিকশার মালিক রাসিক এলাকার ভোটার বা নাগরিক নন, তাদের রেজিস্ট্রেশন বাতিল হবে।

কোন অটোরিকশা ও চার্জার রিকশার মালিকের নামে ৫টির অধিক অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা থাকলে ৫টি বহাল রেখে বাকিগুলোর রেজিস্ট্রেশন বাতিল হবে। যে সকল অটোরিকশা ও চার্জার রিকশার রেজিস্ট্রেশন ৫ বছর পূণ হয়নি, মালিকগণ এসব অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা নবায়ন ফি প্রদান করে নবায়ন করতে পারবেন।

অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা দুই ভাগে বিভক্ত হবে ও জোড় সংখ্যার রঙ সবজু ও বিজোর সংখ্যার রঙ লাল হবে। নিবন্ধন কার্ডের নম্বর অনুযায়ী বিজোড় সংখ্যা লাল ও জোড় সংখ্যা সবুজ রঙ এর সম্পূর্ণ হুড ও যান রঙ করে ব্যবহার করতে হবে।

মাসের প্রথম সপ্তাহে সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত লাল রঙ এবং দুপুর ২টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সবুজ রঙ এর অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা চলাচল করবে। পরের সপ্তাহে সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সবুজ রঙ এবং দুপুর ২টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত লাল রঙ এর অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা চলাচল করবে।


’শুক্রবার ও সরকারি ছুটির দিন এবং রাত ১০টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত উভয় রঙের অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা চলাচল করতে পারবে। রুট প্ল্যান অনুযায়ী যানবাহন চলাচল করবে। যানবাহনগুলি নিবন্ধন কার্ড ব্যতিত নগর এলাকায় চলাচল করতে পারবে না।


মালিক, চালক ও অটোরিকশা ও চার্জার রিকশার পৃথক পৃথক নিবন্ধন থাকবে। রিকশা চালকদের পরিচয়পত্র দেবে রাসিক। চালকদের নির্দিষ্ট পোষাক পরিধান করতে হবে।

রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ সরিফুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন-কাউন্সিলর নিযাম উল আযীম, তৌহিদুল হক সুমন, শহিদুল ইসলাম, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর উম্মে সালমা, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাওগাতুল আলম, আরএমপির ডিসি (ট্রাফিক) অনির্বান চাকমা, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহান, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মোঃ মামুন, রাজস্ব কর্মকর্তা আবু সালেহ মোঃ নূর-ঈ-সাঈদ, সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) আহমেদ আল মঈন পরাগ প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য