শিল্পায়নে নরওয়ের বিনিয়োগ চাইলেন লিটন

14
শিল্পায়নে নরওয়ের বিনিয়োগ চাইলেন লিটন

স্টাফ রিপোর্টার: কৃষিপ্রধান রাজশাহীতে শিল্পায়নে নরওয়ের বিনিয়োগ চেয়েছেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। বুধবার রাজশাহী সফররত বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত সিডসেল ব্লেকেনের সাথে মতবিনিময়কালে এই আহবান জানান লিটন। দুপুরে নিজ দপ্তরে সিডসেল ব্লেকেনের সাথে মতবিনিময় করেন রাসিক মেয়র।

লিটন বলেন, রাজশাহী কৃষিপ্রধান অঞ্চলে তেমন শিল্পকারখানা গড়ে ওঠেনি। আমি রাজশাহীর মানুষের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে চাই। সরকার রাজশাহীতে এতোমধ্যে তিনটি শিল্পাঞ্চল অনুমোদন দিয়েছে। আমার পরিকল্পনা, রাজশাহীতে শতাধিক গার্মেন্ট-শিল্প গড়ে তোলা। এজন্য নরওয়ের বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগের অনুরোধ করছি।

খায়রুজ্জামান লিটন যোগ করেন, প্রথমবার মেয়র থাকাকালে নরওয়ের সাথে রাজশাহীর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। কিন্তু ২০১৩ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত আমি দায়িত্বে না থাকায় সেই সম্পর্কে ভাটা পড়ে। আমি আবারো মেয়র নির্বাচিত হয়েছি, আশা করছি নরওয়ের সাথে রাজশাহীর সম্পর্ক আরো গাঢ় হবে। আমরা জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে উপকৃত হতে পাবরো।

ক্লিনসিটি-গ্রিনসিটি রাজশাহীতে পা রেখে অভিভূত নরওয়ে রাষ্ট্রদূত সিডসেল ব্লেকেন বলেন, নরওয়ে এবং বাংলাদেশের বন্ধুত্ব দীর্ঘদিনের। নরওয়ের ক্রিস্টিয়ানস্যান্ড সিটির অনেক মানুষ রাজশাহী সর্ম্পকে জানেন। আগামীতে আমাদের পারস্পারিক সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে। এসময় রাজশাহীর উন্নয়নে পাশে থাকার অঙ্গিকার করেন তিনি।

সফররত নরওয়ে প্রতিনিধি দলে ছিলেন- টর এনব্রেস টরহাগ, মারিয়া টরহাগ, পোন্ট্রাস, ব্রেজহেগেন, ডেগ ভিগসহ রাজশাহী ক্রিস্ট্রিয়ান ফ্রেন্ডশীপ কমিটির সদস্যবৃন্দ।

মতবিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন-রাসিকের প্যানেল মেয়র সরিফুল ইমলাম বাবু ও রজব আলী, সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আজাহার আলী, সচিব রেজাউল করিম, প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহান, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মো. মামুন ডলার প্রমুখ।

এর আগে সিডসেল ব্লেকেন নগর ভবনে এসে পৌঁছালে তাতে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। পরে অতিথিদের নগরভবনের বঙ্গবন্ধু কর্ণার ঘুরে দেখান। এ সময় মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং শহীদ কামারুজ্জামানসহ চার জাতীয় নেতা সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন মেয়র। শেষে শুভেচ্ছা স্মারক বিনিময় করেন।

আপনার মন্তব্য