অস্ট্রেলিয়ার তরুণ শীর্ষ ধনীর তালিকায় বাংলাদেশী আশিক

39

তারুণ্য ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়ার তরুণ শীর্ষ ধনীর তালিকায় উঠে এসেছেন বাংলাদেশী তরুণ আশিক আহমেদ। 

অস্ট্রেলিয়ান ফিন্যান্সিয়াল রিভিউয়ের প্রকাশ করা তালিকায় ১০৩ জনের মধ্যে আশিকের অবস্থান ২৫তম।
 

আশিক আহমেদ ডেপুটি নামের হিসাবরক্ষণবিষয়ক সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠানের সহপ্রতিষ্ঠাতা, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ও প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা (সিটিও)।

 তার সম্পদের পরিমাণ ১৪ কোটি ৮০ লাখ ডলার, যা বাংলাদেশী মুদ্রায় ১ হাজার ২৫০ কোটি টাকার বেশি।

অস্ট্রেলিয়ান ফিন্যান্সিয়াল রিভিউয়ের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৩৮ বছর বয়সী আশিক আহমেদ বাংলাদেশ থেকে অস্ট্রেলিয়ায় যান মাত্র ১৭ বছর বয়সে।

 তিনি অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নের একটি ফাস্টফুড চেইনে কাজ শুরু করেন। পরবর্তী সময়ে ডেপুটি নামের সফটওয়্যারটি তৈরি করেন তিনি। 

প্রতিবেদনে দেয়া এক উদ্ধৃতিতে আশিক আহমেদ বলেন, ‘কখনই শুধু উপার্জনের উদ্দেশ্যে কাজ করিনি। বরং শুরু থেকেই লক্ষ্য ছিল সমস্যা সমাধানের।’

সফটওয়্যার তৈরির বিষয়টি সম্পর্কে অস্ট্রেলিয়ার এসবিএস নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাত্কারে তুলে ধরেছেন আশিক আহমেদ। 

এতে তিনি জানান, শুরুতে ঘণ্টাভিত্তিক বেতনে কাজ করতেন। এ ধরনের কাজে কাজের সূচির (রোস্টার) হিসাব রাখা বেশ ঝামেলাপূর্ণ বলে মনে হয় তার কাছে। 

আর এটি মালিক ও কর্মী—দুই পক্ষের জন্যই ঝামেলার। এ সমস্যা সমাধানের সহজ উপায় খুঁজতে গিয়েই ডেপুটি নামের সফটওয়্যারটি তৈরির উদ্যোগ নেন তিনি। 

নিজের গণিত, বিজ্ঞান ও কর্মক্ষেত্রের অভিজ্ঞতা এক্ষেত্রে তাকে সহায়তা করেছে। ২০০৮ সালে তৈরি হয়  সফটওয়্যারটি। 

এর পর থেকে শুরু হয় সামনের দিকে এগিয়ে চলা, যা তাকে বর্তমান অবস্থানে নিয়ে এসেছে।

জানা গেছে, ডেপুটি সফটওয়্যারটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কর্মচারীদের রোস্টার তৈরি ও বেতনের হিসাবরক্ষণের কাজ অত্যন্ত সহজ করে দেয়। 

বর্তমানে সফটওয়্যারটির গ্রাহক সংখ্যা ১ লাখ ৮৪ হাজার। এর মধ্যে রয়েছে নাসা, অ্যামাজন, উবার, গুগল, ম্যাকডোনাল্ডস, কম্পাস ও অস্ট্রেলিয়ার শীর্ষ এয়ারলাইনস ক্যান্টাসও।

আপনার মন্তব্য